বাজারে বেড়েছে নিত্যপণ্যের দাম, বিপাকে ক্রেতারা

0

সপ্তাহের ব্যবধানে বাজারে চাল, ভোজ্যতেল, চিনি ও পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। এছাড়া অন্যান্য পণ্যের দামও আগের চাইতে বেশ চড়া বলে জানিয়েছেন ক্রেতারা।

তবে বিক্রেতারা বলছেন, পাইকারি বাজার থেকে বেশি দামে কেনায় তাদেরও বাড়তি দামেই বিক্রি করতে হচ্ছে পণ্য।

শুক্রবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে রিয়াজউদ্দিন বাজার, চকবাজার, কাজীর দেউড়ি বাজার ঘুরে এ তথ্য পাওয়া যায়।

গত সপ্তাহের দামে বিক্রি হচ্ছে সবজি। প্রতিকেজি বেগুন ৮০ টাকা, গাজর ৪০ টাকা, শিম ৪০ থেকে ৬০ টাকা, টমেটো ৪০ থেকে ৫০ টাকা, আলু ১৪ থেকে ১৫ টাকা, কাঁচামরিচ ৮০ টাকা, পেঁপে ৪০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৪০ টাকা, পটল ৫০ টাকা, ঢেঁড়স ৬০ টাকায়।

এ সপ্তাহে দাম বেড়েছে পেঁয়াজের। দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা কেজি। এছাড়া প্রতিকেজি চায়না রসুন ১২০ টাকা, আদার কেজি ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে মসুর ডাল। ইন্ডিয়ান মসুর ডালের কেজি ১০০ টাকা। গত সপ্তাহে ইন্ডিয়ান মসুর ডাল প্রতিকেজি বিক্রি হয় ৯০ থেকে ৯৫ টাকায়। দেশি মসুর ডাল বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা কেজি দরে।

এসব বাজারে ভোজ্যতেলের প্রতিলিটার তেল বিক্রি হচ্ছে ১৬৮ টাকা। এছাড়া প্রতিকেজি চিনি বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা। যা আগে ছিল ৭২ টাকা।

বাজারে আগের দামে বিক্রি হচ্ছে মুরগি। ব্রয়লার মুরগি প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ১৫০ থেকে ১৬০ টাকা, সোনালি মুরগি ২৫০ টাকা, লেয়ার মুরগির ২৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া প্রতিকেজি গরুর মাংস ৭০০ ও খাসির মাংস বিক্রি হচ্ছে ৮০০ টাকায়।

মাছের মধ্যে প্রতিকেজি তেলাপিয়া ১৫০ টাকা, চিংড়ি ৬০০ টাকা, রুপচাঁদা ১২০০ টাকা, রুই ২৫০ টাকা, কাতল ২৪০ থেকে ২৫০ টাকা, ইলিশ ৮০০ থেকে ১২শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

জয়নিউজ/হিমেল/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...