সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি নিয়ে সরকার চিন্তিত: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

0

দেশে গেল কয়েকদিনে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সংক্রমণ ১৮ শতাংশ বেড়েছে উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ‘এভাবে সংক্রমণ বাড়লে আগামী এক থেকে দেড় মাসের মধ্যে হাসপাতালে জায়গা হবে না।’ এ নিয়ে সরকারও চিন্তিত ও আতঙ্কিত বলে জানান তিনি। সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সচিবালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী সবাইকে মাস্ক পরার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের পুরো সময়েও সংক্রমণ এত দ্রুতগতিতে বাড়েনি। মানুষ বেপরোয়াভাবে চললে এটা বাড়তে থাকবে।’

হাসপাতালে রোগীর চাপ আবার বেড়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এখন যেভাবে বাড়ছে, তাতে আগামী এক-দেড় মাসের মধ্যে হাসপাতালে কোনও জায়গা থাকবে না। তখন চিকিৎসা দেওয়া কঠিন হয়ে পড়বে। এ কারণে জনগণকে আহ্বান করছি, অনুরোধ করছি তারা যেন স্বাস্থ্যবিধি মানে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখেন।’

এখন দেশে বেশিরভাগই ওমিক্রনে সংক্রমিত বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমরা ঢাকায় যে নমুনা পরীক্ষা করেছি, জিনোম সিকোয়েন্স করেছি, তাতে দেখা গেছে ওমিক্রন এখন ৬৯ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। যেটা আগে ১৩ শতাংশ ছিল। আমরা গত ১০ দিনের মধ্যেই এই তথ্য পেয়েছি। আমরা মনে করি ঢাকার বাইরেও একই হার হবে।’

এদিকে আজ থেকে ৫০ বছরের বেশি বয়সের ব্যক্তিদের বুস্টার ডোজ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। আগে ফ্রন্টলাইনার ছাড়া শুধু ষাটোর্ধ্বদের বুস্টার ডোজ দেওয়া হচ্ছিল। জাহিদ মালেক জানান, এ পর্যন্ত ৭ লাখ বুস্টার ডোজ দেওয়া হয়েছে। এখনও সরকারের হাতে ৯ কোটি ৩০ লাখ ডোজ টিকা মজুত রয়েছে। আর দেশে এক ডোজ, দুই ডোজ ও বুস্টার ডোজ মিলিয়ে এ পর্যন্ত সাড়ে ১৪ কোটি টিকা দেওয়া হয়েছে।

এসময় সরকারের দেওয়া ১১ দফা বিধিনিষেধ মানার আহ্বান জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, বিধিনিষেধ না মানলে ওমিক্রনের সংক্রমণ আরও বাড়বে।

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...