ওমিক্রন পৌঁছেছে ১০৬ দেশে: ডব্লিউএইচও

0

দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সংক্রমণ ক্রমান্বয়ে বাড়ছে এবং এটি বিশ্বজুড়ে এক ধরনের ঝুঁকি তৈরি করছে। মঙ্গলবার (২২ ডিসেম্বর) বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মহামারিবিষয়ক হালনাগাদ প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

উদ্বেগজনক এই ভ্যারিয়েন্টের বিস্তারের ব্যাপারে ডব্লিউএইচও বলছে, বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের নমুনার জিনগত বিন্যাসে ৯৬ শতাংশে ডেল্টা মিলছে। তবে এই হার আগের সপ্তাহের ৯৯ দশমিক ২ শতাংশের তুলনায় কিছুটা কম। আর একইসময়ে ওমিক্রনের উপস্থিতি আগের সপ্তাহের ০ দশমিক ৪ শতাংশের তুলনায় বৃদ্ধি পেয়ে ১ দশমিক ৬ শতাংশে পৌঁছেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১০৬টি দেশে পৌঁছেছে।

সংস্থাটি বলছে, বিশ্বজুড়ে আধিপত্য বিস্তার করে আসা ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের কাছে জায়গা হারাচ্ছে। ওমিক্রনের আধিপত্যশীল হয়ে ওঠার ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। এই ভ্যারিয়েন্ট অত্যন্ত দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। এমনকি কিছু কিছু দেশে ওমিক্রনের স্থানীয় সংক্রমণ এবং উচ্চ স্তরের ইমিউনিটি থাকা লোকজনের আক্রান্ত হওয়ার প্রমাণ মিলেছে।

তবে এই ভ্যারিয়েন্টের বিষয়ে এখনো সীমিত তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। যুক্তরাজ্য এবং দক্ষিণ আফ্রিকায় ওমিক্রনে আক্রান্তদের হাসপাতালে ভর্তি বাড়ছে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে। দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় এরপরই রয়েছে রাশিয়া, জার্মানি, পোল্যান্ড, ইউক্রেন ও ফ্রান্স। এতে বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২৭ কোটি ৬৫ লাখ। অন্যদিকে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৫৩ লাখ ৮৪ হাজার। সূত্র: সিএনএন।

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...