বাংলাদেশ দলে নেই সৌম্য-লিটন-মুশফিক

0

বিশ্বকাপ ব্যর্থতার পর পাকিস্তান সিরিজের দলে বড় পরিবর্তন আভাস আগেই ছিল। ক্রিকেটপ্রেমীরা অপেক্ষায় ছিলেন কবে ঘোষণা হবে পাকিস্তান সিরিজের দল। অবশেষে মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) বিকেলে পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়েছেন পাঁচ ক্রিকেটার, প্রথমবার জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন দুই ক্রিকেটার।

১৬ সদস্যের দলে নেই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম। বিশ্বকাপে থেকে ফিরে এসে তিনি টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য বিশ্রাম চেয়েছিলেন। তার ইচ্ছের গুরুত্ব দিয়ে বিসিবি বিশ্রাম দিয়েছে। যদিও বিশ্বকাপে তার পারফরম্যান্স ছিল হতাশাজনক। ৮ ম্যাচে ২০.৫৭ গড়ে মুশফিকের রান ছিল ১৪৪। বিশ্বকাপের ব্যর্থতায় তাকে নিয়ে সমালোচনা হয়েছিল।

মুশফিক বিশ্রাম পেলেও দুই ওপেনার লিটন দাস ও সৌম্য সরকারও আসন্ন সিরিজের দল থেকে বাদ পড়েছেন। বিশ্বকাপের মঞ্চে বাজে সব শট খেলে দ্রুত আউট হয়ে দলকে বিপদে ফেলেছিলেন এই দুই ব্যাটার। বিশ্বকাপ চলাকালেই দু’জনকে নিয়ে বিপুল সমালোচনা হচ্ছিল। ৮ ম্যাচে লিটনের রান ছিল ১৩৩। অন্যদিকে ৪ ম্যাচে সৌম্যর সংগ্রহ ২৭ রান। নিয়মিত ভাবে এই দুই ব্যাটারে আস্থা রাখা নির্বাচকরা এবার আর আস্থা রাখতে পারেননি।

এই তিনজনের বাইরে বিশ্বকাপ দল থেকে অনুমিত ভাবেই বাদ পড়েছেন দুই ক্রিকেটার। সাকিব আল হাসান ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ইনজুরিতে আগেভাগেই আরব আমিরাত ছেড়েছিলেন।

তাদের অনুপস্থিতিতে প্রথমবার বাংলাদেশের জার্সিতে খেলার সুযোগ পেয়েছেন দুই ক্রিকেটার। ২০১৯ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জেতাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন আকবর আলী। হুট করে পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে তাকে যোগ করে চমক দেখালেন নির্বাচকরা। মোট ২৯টি টি-টোয়েন্টি খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে এই ক্রিকেটারের।

এছাড়া ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত পারফর্ম করা পেসার শহীদুল ইসলামেরও সুযোগ হয়েছে টি-টোয়েন্টি দলে। বিপিএলে জেমকন খুলনা, খুলনা টাইগার্সের হয়ে খেলার অভিজ্ঞতা আছে ডানহাতি এই পেসারের। সবমিলিয়ে ৩৭টি টি-টোয়েন্টি খেলে ৫৪ উইকেট শিকার করেছেন এই পেসার।

এই দু’জন ছাড়া বাকি তিন ক্রিকেটার কোনো না কোনো ফরম্যাটে জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন। যদিও ইয়াসির আলী রাব্বির এখনও জাতীয় দলে অভিষেক হয়নি। সাইফ হাসান টেস্ট খেললেও সংক্ষিপ্ত ফরম্যাট খেলার সুযোগ পাননি। আরেক ব্যাটার নাজমুল হোসেন শান্তর সব ফরম্যাটেই খেলার অভিজ্ঞতা আছে। তবে গত কয়েকটি সিরিজে তিনি টি-টোয়েন্টি দলে ছিলেন না।

বিশ্বকাপে স্ট্যান্ডবাই দলে ছিলেন আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। তাকে বিশ্বকাপ শুরুর আগেই ফেরত পাঠানো হয়েছিল। তবে পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৬ জনের দলে রাখা হয়েছে এই লেগ স্পিনারকে।

প্রসঙ্গত, ৫ বছর পর বাংলাদেশ সফরে এসেছে পাকিস্তান। ১৯, ২০ ও ২২ নভেম্বর ঢাকায় বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে মাঠে নামবে দুই দল। ২৬ নভেম্বর থেকে চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের প্রথম টেস্ট। ৪ ডিসেম্বর থেকে ঢাকায় খেলা হবে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।

বাংলাদেশ দল: মোহাম্মদ নাইম শেখ, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন ধ্রুব, নুরুল হাসান সোহান, নাসুম আহমেদ, শেখ মেহেদী হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, শামীম পাটোয়ারী, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, শহিদুল ইসলাম, ইয়াসির আলী রাব্বি, আকবর আলী।

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...