ধর্ষণের ৭২ ঘণ্টা পর মামলা নিতে পুলিশকে সতর্ক থাকার পরামর্শ

0

ধর্ষণের ঘটনার ৭২ ঘণ্টা অতিক্রান্ত হলে ধর্ষণের আলামত থাকে না। এরপর কোনো ভিকটিম মামলা দায়ের করতে গেলে পুলিশকে যথেষ্ট সতর্কতার সঙ্গে মামলা গ্রহণ করার পরামর্শ দিয়েছেন আদালত।

বনানীর রেইনট্রি হোটেলে দুই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলেসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলার রায় ঘোষণা করতে গিয়ে বিচারক এই পরামর্শ দেন।

বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক মোসাম্মৎ কামরুন্নাহার রায় ঘোষণা করেন। রায়ে সবাইকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়।

রায় ঘোষণার সময় বিচারক বলেন, ধর্ষণের আলামত না পেলে পুলিশ যেন কোনো মামলা গ্রহণ না করে। এ ধরনের মামলায় অযথা আদালতের সময় নষ্ট হয়।

ট্রাইব্যুনাল বলেন, রেইনট্রি হোটেল ধর্ষণের এই মামলাটি অত্যন্ত চাঞ্চল্যকর। এই মামলায় বিচার করতে গিয়ে অনেক সময় নষ্ট হয়েছে। এই সময়ে আরও অনেক মামলা নিষ্পত্তি করা যেত। অথচ বাদীর অভিযোগ অনুযায়ী ঘটনাস্থলের কোন আলামত নেই। এ ধরনের মামলা গ্রহণ করে এবং তদন্ত কর্মকর্তা কর্তৃক আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে জনগণের সময় নষ্ট করা হয়েছে। ট্রাইব্যুনাল তদন্ত কর্মকর্তাকে ভর্ৎসনা করেন।

পুলিশের উইমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনের (ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার) পরিদর্শক ইসমত আরা এমি এই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ছিলেন। ট্রাইব্যুনাল বলেছেন, প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত না হওয়া সত্ত্বেও তিনি কোনো আলামত ছাড়া, মেডিকেল রিপোর্টে ধর্ষণের প্রমাণ ছাড়া এই অভিযোগ পত্র দাখিল করেছেন।

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...