করোনা আক্রান্ত শোনার পর পালালেন ৩ রোগী

0

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে পালিয়ে গেছেন এক নারীসহ তিন করোনা আক্রান্ত রোগী। বুধবার (২ জুন) দুপুরের দিকে ওই রোগীরা হাসপাতালে ভর্তি থাকা অবস্থায় পালিয়ে যায়।

মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (টিএইচও) ডা. মকসেদুল মোমিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রামানন্দ পাল করোনা আক্রান্ত উপজেলার সদরের রুইজানি গ্রামের দুইজন ও বিনোদপুর গ্রামের একজনের বসতবাড়িতে লাল পতাকা টাঙিয়ে লকডাউন করে দিয়েছেন।

রোগী পালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মহম্মদপুর থানায় লিখিতভাবে জানিয়েছে।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, ৩১ মে করোনার উপসর্গ নিয়ে মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনা ওয়ার্ডে ছয় ব্যক্তি ভর্তি হয়। ১ জুন তাদের নমুনা পরীক্ষার জন্য যবিপ্রবি ল্যাবে পাঠানো হয়। আজ বুধবার (২ জুন) দুপুরে ল্যাব থেকে দেওয়া ফলাফলে তিনজনের করোনা পজিটিভ আসে। তাদের একজন নারী ও দুইজন পুরুষ। ওয়ার্ডে দায়িত্বপ্রাপ্তরা আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি রোগীদের জানান।

হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) কাজী আবু আহসান বলেন, দুপুরের দিকে ওই তিন রোগীকে ওয়ার্ডে খুঁজতে যান দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা। তখন থেকে তাদের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। এমনকি ভর্তি রেজিস্ট্রারে থাকা রোগীর মোবাইল ফোন নম্বর বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। তাই তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করা হয়।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, পালিয়ে যাওয়া করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিরা হলেন— মহম্মদপুর উপজেলা সদরের রুইজানি গ্রামের আলী আকবর মুন্সী (৬০), একই গ্রামের আবু মোল্যা (৬০) ও বিনোদপুর গ্রামের হাসেম মৃধার স্ত্রী (৫০) খাদিজা বেগম।

মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারক বিশ্বাস জানান, পালিয়ে যাওয়া তিন করোনা রোগীর সন্ধান পেতে তারা কাজ করছেন। আত্মীয়দের মাধ্যমে তাদের ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে।

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...