দ্বিতীয় ডোজ টিকা নেওয়ার পর মৃত্যু নেমেছে শূন্যের কোটায়

0

করোনায় নাস্তানাবুদ পুরো ভারত। সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির সঙ্গে অক্সিজেন সংকটে বেসামাল দেশটির স্বাস্থ্যখাত। সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ছাড়িয়েছে সাড়ে তিন লাখ। মোট আক্রান্ত প্রায় পৌনে দুই কোটি। আর মৃতের সংখ্যা দুই লাখ ছুঁই ছুঁই। এ অবস্থাতেও ভ্যাক্সিনেশন বন্ধ করেনি দেশটি।

আরে এ করোনার টিকার ডাবল ডোজ নিয়ে করোনা সংক্রমণের হার দুই শতাংশের নিচে নেমে এসেছে। আর মৃত্যু নেই বললেই চলে। আর প্রথম ডোজ নিয়ে আক্রান্ত হলেও কেউই খুব বেশি কাবু হচ্ছে না। ভারতের চলমান সংক্রমণ পরিস্থিতি পর্যালচনা করে এমনটাই জানিয়েছেন ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক প্রধান ডা. কে কে আগারওয়াল।

ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক প্রধান জানান, ভ্যাকসিন নেওয়ার পর আক্রান্তের হার কত তার সঠিক পরিসংখ্যান না থাকলেও বিশ্লেষণ বলছে দ্বিতীয় ডোজ নিলে আক্রান্তের সংখ্যা দুই শতাংশের কম। আর প্রথম ডোজ নিয়ে আক্রান্ত হলেও মৃত্যুর হার শূন্যের কাছাকাছি।

অন্যদিকে বাংলাদেশে এক কোটি তিন লাখ ডোজ টিকা দেওয়া হলেও মোট জনসংখ্যার মাত্র ছয় শতাংশ টিকার আওতায় আসবে। এ বাস্তবতায় সংক্রমণের গতি না নামলেও এরই মধ্যে প্রথম ডোজ বন্ধ করার ঘোষণা এসেছে। ভারত এবং বৈশ্বিক ফলাফল বিবেচনায় যে কোনো মূল্যে ভ্যাকসিনেশন চালু রাখার পরামর্শ স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের।

জয়নিউজ/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...