ইউরোপের ২৭ দেশে অনুমোদন পেতে যাচ্ছে জনসনের টিকা

0

অনুমোদনের অপেক্ষায় জার্মানিসহ ইউরোপের ২৭ দেশে অনুমোদনের অপেক্ষায় যুক্তরাষ্ট্রের করোনার টিকা জনসন অ্যান্ড জনসন এবং রাশিয়ার স্পুটনিক ফাইভ। তবে সবকিছু ঠিক থাকলে আজ জনসন অ্যান্ড জনসন ইইউর মেডিসিন এজেন্সির অনুমোদন পাওয়ার কথা থাকলেও রোলিং রিভিউতে থাকা স্পুটনিক ফাইভকে অপেক্ষা করতে হবে আরো কয়েকটি দিন।

হতে পারে যুক্তরাষ্ট্র ও বেলজিয়ামের ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান জনসন অ্যান্ড জনসনের কোভিডের টিকা ad26.cov2.S মানবদেহে করোনার বিরুদ্ধে মাত্র ৬৬ শতকাংশ কার্যকর। কিন্তু শুরু থেকেই বিশ্বাসযোগ্য ক্লিনিক্যাল গবেষণা এবং যুক্তরাষ্ট্র, ল্যাটিন আমেরিকা ও দক্ষিণ আফ্রিকায় ৭০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীর শরীরে তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে ইউরোপীয় মেডিসিন এজেন্সি ও অন্যান্য চিকিৎসাবিজ্ঞানীরা নিশ্চিত হয়েছেন পুরাতন কিংবা নতুন করোনার বিরুদ্ধে এই টিকাটি মানবদেহে ৯০ শতাংশেরও বেশি অ্যান্টিবডি তৈরি করতে সক্ষম। যেখানে করোনা থেকে বাঁচতে এক ডোজই যথেষ্ট। সাড়ে ৮ ডলার দামের টিকাটি সংরক্ষণ করা যাবে প্লাস ২-৮ ডিগ্রিতে আর মাইনাস ২০ ডিগ্রিতে রাখা যাবে কমপক্ষে ২ বছর। ইতোমধ্যে ৪০০ মিলিয়ন ডোজের চুক্তিও করেছে ইইউ। তবে শুধু জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা নয় ইইউ মেডিসিন এজেন্সির অনুমোদনের অপেক্ষায় থাকা স্পুটনিক ফাইভ নিয়েও আশাবাদী জার্মানির নাগরিকরা।

একজন জানান, দেখুন বিশ্বব্যাপী কার্যকরী টিকা যত আবিষ্কার হবে দেশ ও পৃথিবীর জন্য ততই মঙ্গলজনক, জানি টিকার মধ্যেও ভালোমন্দ আছে কিন্তু তারপরও বিশ্বব্যাপী চলমান অসুস্থ রাজনীতির জাঁতাকলে পড়ে চীন কিংবা রাশিয়ার তৈরি কার্যকরী করোনার টিকা স্পুটনিক ভি কে খারাপ বলতে পারি না। ভালোকে ভালো বললে দোষের কি আপনিই বলুন?

এদিকে করোনার টিকা কার্যক্রমকে আরো সহজ করতে জার্মানির অন্তত ৭৫ হাজার ডাক্তারের চেম্বার ও চিকিৎসাকেন্দ্র নির্ধারণ করেছে দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ। এতে করে করোনার টিকা গ্রহণ অনেক বেশি সহজ হবে বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে লকডাউনের শিথিলতায় সীমিত পর্যায়ে বিভিন্ন বিপণিবিতানের দোকানপাট খুলে দেয়ায় খুশি অনেকেই।

জয়নিউজ/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...