নতুন বই নিয়ে বাড়ি ফেরা হলো না শিশু জায়রিনের

0

নতুন বই নিয়ে বাড়ি ফেরা হলো না শিশু জায়রিন সুবাহ (৮) নামে এক শিশুর। কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় লবণবোঝাই ট্রলির ধাক্কায় তার মৃত্যু হয়েছে। রোববার (১০ জানুয়ারি) সকালে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জায়রিন পূর্ব চরধুরুং এলাকার কায়সার আলমের মেয়ে। সে ধুরুং বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা গার্লস কেজি স্কুলের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

সূত্রমতে, নিহত শিশু জায়রিনের পিতা কায়সার আলম কুতুবদিয়ার উত্তর ধুরুং ইউনিয়নে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের পরিদর্শক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। চাকরির সুবাদে তিনি পরিবার-পরিজন নিয়ে কার্যালয়ে থাকেন। রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নতুন বই আনতে স্কুলে যায় জায়রিন সুবাহ। বই নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে উত্তর ধুরুং ইউনিয়ন পরিষদের সামনে রাস্তা পারাপারের সময় লবণবোঝাই দ্রুতগামী ট্রলির ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই মারা যায় শিশু জায়রিন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকালে স্কুল থেকে বই নিয়ে জিপগাড়িতে করে ধুরুং ইউনিয়ন পরিষদের সামনে নামে শিশু জায়রিন। গাড়ি থেকে নামার পরেই লবণবোঝাই দ্রুতগামী একটি ট্রলির ধাক্কায় মাটিকে পড়ে যায় সে। পরে পথচারীরা উদ্ধার করে কুতুবদিয়া উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে কুতুবদিয়া হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার সাইমা তাবাচ্ছুম বলেন, বেলা ১১টার দিকে জায়রিন নামে এই শিশুকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়। মুখে এবং মাথায় ব্যাপক আঘাতের কারণে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। এতে তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করেন তিনি।

উত্তর ধুরুং ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন আল আজাদ জানান, এই মৃত্যুর ঘটনাটি খুবই কষ্টদায়ক। শিশুটির রক্তে লাল হয়ে আছে রাস্তা। মূলত বেপরোয়া গতিতে লবণবোঝাই ট্রলি চলাচলের কারণে এমন মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনাটি ঘটেছে।

জয়নিউজ/গিয়াস/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...