চট্টগ্রামবাসীকে বাঁচানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আহ্বান সুজনের

0

চট্টগ্রামবাসীকে করোনার করাল গ্রাস থেকে বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আহ্বান জানিয়েছেন নাগরিক উদ্যোগের প্রধান উপদেষ্টা ও নগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি খোরশেদ আলম সুজন।

মঙ্গলবার (১৯ মে) এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে এ আবেদন জানান।

এ সময় জনাব সুজন বলেন দেশে করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে ইতোমধ্যে আপনার দেওয়া ৩১ দফা নির্দেশনা সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। এছাড়া জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে আপনি বলেছেন, করোনাভাইরাস মোকাবেলাও একটা যুদ্ধ, যে যুদ্ধে মানুষের দায়িত্ব হবে ঘরে থাকা। আপনি দেশের একেবারে নিম্ন আয়ের মানুষ দিন-মজুর শ্রেণী, কামার-কুমার, রিকশাওয়ালা, ভ্যানওয়ালা থেকে শুরু করে ছোট ছোট দোকানদার এবং ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী প্রত্যেকের কথা চিন্তা করেই বিশাল অংকের প্রণোদণার ঘোষণা দিয়েছেন।

দেশে প্রথম করোনা রোগী সনাক্ত হওয়ার পূর্ব থেকেই আজ পর্যন্ত আপনি সবকিছু নিজ হাতে দক্ষতার সঙ্গে সামলে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রাণান্তকর সংগ্রাম করে যাচ্ছেন। অত্যন্ত দুঃখ ও পরিতাপের বিষয় এই যে দেশের বাণিজ্যিক রাজধানী খ্যাত চট্টগ্রাম আজ করোনা রোগীর চাপে বেসামাল। এই শহরের মানুষ চিকিৎসার অভাবে মারা যাচ্ছে। অথচ এই শহর থেকেই দেশের শতকরা ৮০ ভাগ আয় জাতীয় অর্থনীতিতে যোগ হয়। প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রাম শহরে দ্রুততার সঙ্গেই করোনা সংক্রমিত হচ্ছে। অধিক ঝুঁকিপূর্ণ রোগীর সংখ্যা পাল্লা দিয়ে বাড়ছে। করোনা নমুনা পরীক্ষার পর্যাপ্ত সুবিধা এখানে অপ্রতুল, নেই জীবন রক্ষাকারী আইসিইউ, নেই ভেন্টিলেটর।

সুজন বলেন, মানুষের জীবন আজ মৃত্যুর মুখোমুখি। করোনা রোগীর জন্য নির্ধারিত জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউতে কোনো সিট খালি নেই। তাহলে এরপর চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত কোনো রোগী কি আইসিইউ সিটের অভাবে পথে পথে মারা পড়বে?

তিনি আরো বলেন, যে শহর বাংলাদেশের অর্থনীতির সিংহভাগ যোগান দেয় সে শহরের মানুষ কি আজ শুধু চিকিৎসার অভাবেই মারা যাবে। আপনি নিজেই এ শহরের চিকিৎসা ব্যবস্থাকে নিয়ে আমলাতান্ত্রিক জটিলতার লাল ফিতাকে কেটে টুকরো করে ফেলুন।

জয়নিউজ/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...