চট্টগ্রামে পুলিশ-সাংবাদিকসহ আরও ৫৪ জন করোনাক্রান্ত

0

চট্টগ্রামে একদিনে তিন সাংবাদিক ও পুলিশসহ আরও ৫৪ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ২১ জন নগরের ও ৩৩ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

সোমবার (১৮ মে) রাতে চট্টগ্রামে করোনার ৩টি ল্যাবে ২২২টি নমুনা পরীক্ষা শেষে এসব তথ্য জানান চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি।

বিআইটিআইডি’র ল্যাব
বিআইটিআইডিতে ১২৪টি নমুনা পরীক্ষায় ২৭ জনের পজিটিভ আসে। এর মধ্যে ২১ জন চট্টগ্রাম নগরের। তাদের মধ্যে চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের সাংবাদিক জোবায়ের মনজুর ও হারুন এবং ইন্ডিপেডেন্ট টিভির ক্যামেরাপারসন মো. আলমগীর আছেন।

এছাড়া চট্টগ্রাম নগর পুলিশের একজন সার্জেন্ট ও দুইজন কনস্টেবল, আলফালাহ গলির ১ জন, মিস্ত্রি দপাড়া ২ জন, হালিশহর পুলিশ লাইনের ১ জন, বন্দরটিলার ১ জন, শিল্প পুলিশের ১ জন, পাহাড়তলীর ১ জন, আকবরশাহ এলাকার ২ জন ও টেক্সটাইল এলাকার ২ জন আছেন আক্রান্তের তালিকায়।

উপজেলার মধ্যে পটিয়া, চন্দনাইশ, মিরসরাই, সীতাকুণ্ড, হাটহাজারী ও বাঁশখালীতে একজন করে মোট ৬ জনের করোনা পাওয়া গেছে।

সিভাসু’র ল্যাব
চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিভাসু) ল্যাবে ৭৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ২৪টি পজিটিভ। তার মধ্যে ২২ জন চট্টগ্রামের। বাকি ২ জন খাগড়াছড়ি জেলার বাসিন্দা।

চট্টগ্রামে নতুন শনাক্তদের মধ্যে পটিয়ার ৮ জন, সীতাকুণ্ডের ৭ জন, হাটহাজারীর ৬ জন ও বাঁশখালীর ১ জন রয়েছেন।

চমেক ল্যাব
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হলেও আজকে ফলাফল জানা যায়নি। সিভিল সার্জন জানিয়েছেন, আগামীকাল সকালে চমেক ল্যাবের ফলাফল জানা যাবে।

কমেক ল্যাব
কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ (কমেক) ল্যাবে ২৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে লোহাগাড়ার জনপ্রতিনিধি, স্বাস্থ্যকর্মীসহ আরও ৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে পদুয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (৩৮), স্বাস্থ্যকর্মী (৩৫) ও একজন ৩৭ বছরের পুরুষ ব্যবসায়ী রয়েছেন।

ইউপি সদস্যের বাড়ি পদুয়া ফরিয়াদিরকুল এলাকায় এবং তিনি পদুয়ার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার, স্বাস্থ্যকর্মীর বাড়ি লামা পার্বত্য উপজেলার কেয়াজু পাড়ায়, ব্যবসায়ীর বাড়ি উপজেলার পূর্ব কলাউজানের মিয়াজি পাড়ায় এবং অপর দু’জন মহিলার বাড়ি উপজেলার লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নের সওদাগর পাড়ায়।

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...