সদরঘাট থানার ওসিসহ চট্টগ্রামে আরও ৯৫ জন করোনাক্রান্ত

0

চট্টগ্রামে নতুন করে ৯৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সদরঘাট থানার ওসি ফজলুর রহমানসহ ওই এলাকায় সাতজনের দেহে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। বুধবার (১৩ মে) চট্টগ্রামে করোনা পরীক্ষার ৩ ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় এই ফলাফল পাওয়া যায়।

ফৌজদারহাটে অবস্থিত বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিআইডি) ২৩১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রামে পজিটিভ হয় ৩৮টি। নগরে ৩৩ জন ও উপজেলাগুলোতে পাঁচজন পজিটিভ শনাক্ত হয়।

বিআইটিআডির ল্যাবে পাহাড়তলীতে ৩৭ বছর ও ৪০ বছর বয়সী দুইজন পুরুষ, ইপিজেড এলাকায় ৪৯ বছর বয়সী পুরুষ, আন্দরকিল্লায় ৭০ বছর বয়সী পুরুষ, দামপাড়া পুলিশ লাইনে ২৩ বছর, ২৪ বছর, ২৩ বছর, ৪৫ বছর ও ৩২ বছর বয়সী পাঁচজন পুরুষ, ফয়েস’লেক ৪৬ বছর বয়সী পুরুষ, সিটি গেইট এলাকায় ৪১ বছর বয়সী পুরুষ, নয়াবাজারে ৪৮ বছর বয়সী পুরুষ, উত্তর কাট্টলীতে ২৬ বছর বয়সী নারী, নিউ মনসুরাবাদ এলাকায় ১৯ বছর বয়সী যুবতী, হালিশহরে ২৪ বছর ও ৫৫ বছর বয়সী দুইজন পুরুষ, চমেক মেডিকেলে ৪১ বছর বয়সী পুরুষ, ফিল্ড হাসপাতালে ৪৬ বছর বয়সী পুরুষ, ফিরোজ শাহ এলাকায় ৭২ বছর বয়সী পুরুষ, চকবাজারে ৫০ বছর বয়সী পুরুষ, চেীধুরীপাড়ায় ২৫ বছর বয়সী পুরুষ, সদরঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (৪০), একই এলাকার ২৯ বছর, ৪২ বছর, ৪৩ বছর, ৪০ বছর, ৩০ বছর ও ৪০ বছর বয়সী সাতজন পুরুষ করোনায় আক্রান্ত। এছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে ৫০ বছর, ৩০ বছর, ৩৮ বছর ও ৩০ বছর বয়সী চারজন পুরুষ রয়েছেন। উপজেলার মধ্যে রাউজানে ৩৫ বছর বয়সী পুরুষ, সীতাকুণ্ডে ২৬ বছর ও ৪৭ বছর বয়সী দুইজন পুরুষ, পটিয়ায় ৩৫ বছর বয়সী পুরুষ ও সাতকানিয়ার ৪২ বছর বয়সী পুরুষ।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ৯০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় ৪৫ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এর মধ্যে নগরের ৪১ জন এবং চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলার চারজন।

চমেক ল্যাবে শনাক্ত হওয়াদের মধ্যে হাটহাজারীর উপজেলার কাটিরহাটের ২৩ বছরের যুবক, ফয়েস’লেকের ৫২ বছরের বৃদ্ধা, টেরিবাজার এলাকার ৪০ বছরের পুরুষ, ফ্রিপোর্ট এলাকার ২৪ বছরের যুবক, আসকার দিঘীর পাড়ের বেনু প্রাসাদের ৫৬ বছর বয়সী পুরুষ, বন্দর থানাধীন ফ্রিপোর্টের ২৩ বছরের যুবক, বন্দরটিলার ৩৪ বছরের পুরুষ, ৫১ বছরের বৃদ্ধা, কোতোয়ালীর ৫৭ বছরের বৃদ্ধ, হালিশহর থানাধীন সাগরিকার ৪৬ বছরের পুরুষ, বন্দরটিলার ৩৫ বছরের নারী, ডবলমুরিংয়ের ৩৮ বছরের পুরুষ, কর্ণফুলীর চরলক্ষীর ৩২ বছরের নারী, পাঁচলাইশের কাতালগঞ্জের ৩৭ বছরের পুরুষ, বহদ্দারহাটের ২৯ বছরের যুবক, চাদগাঁওয়ের ৩৭ বছরের পুরুষ, কদমতলীর ২৫ বছরের যুবক, হালিশহরের বৌ-বাজারের ৩৫ বছরের পুরুষ, উত্তর আগ্রাবাদের ৭০ বছরের বৃদ্ধ, খুলশীর আমবাগান রেলওয়ে কলোনীর ৫৫ বছরের বৃদ্ধা, একই কলোনীর ২১ বছরের যুবক,একই পরিবারের ৫৮ বছরের বৃদ্ধ, ২৫ বছরের যুবক, ৩৩ বছরের পুরুষ, পতেঙ্গার নেভী হাসপাতালের ২৬ বছরের যুবক, বন্দরের নিমতলার ৬৩ বছরের বৃদ্ধ, বন্দরের মাইলের মাথার ৫৫ বছরের বৃদ্ধা, হাটহাজারীর ৫৬ বছরের বৃদ্ধ, ডবলমুরিং থানাধীন মনসুরাবাদের ৬০ বছরের বৃদ্ধা, বারেক বিল্ডিং ফকিরহাটের ৫৯ বছর বয়সী এক চিকিৎসক, পটিয়ার শান্তিরহাটের ৬৪ বছরের বৃদ্ধা, হাটাহাজারির ৪৬ বছরের পুরুষ, চান্দগাঁও থানাধীন সিএন্ডবি কালুরঘাটের ৬০ বছরের বৃদ্ধ, বন্দরের ফ্রিপোর্টের ৩৬ বছরের নারী, চান্দাঁওয়ের ৩৫ বছরের পুরুষ, আকবরশাহ থানাধীন নিউ মনসুরাবাদের ১৫ বছরের তরুন, জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসাধীন ৩৮ বছরের নারী, হালিশহরের চৌধুরীপাড়ার ২৬ বছরের যুবতী, আগ্রাবাদ চৌধুরী পাড়ার ৩০ বছরের নারী, হালিশহরের চৌধুরীপাড়ার ৩৮ বছরের পুরুষ, পতেঙ্গার স্টিল মিল এলাকার ২৭ বছরের যুবক, হালিশহরের ঈদগাঁ বড়পুকুর পাড়ের ১ বছরের শিশু, একই পরিবারের ৭০ বছরের বৃদ্ধ ও ২৯ বছরের নারী রয়েছেন।

এর আগে সন্ধ্যায় সিভাসুর ল্যাবে ৪৬টি নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে ২০টি পজিটিভ ধরা পড়ে। এর মধ্যে চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার ১২ জন রয়েছে। রাঙামাটির ৫ জন ও খাগড়াছড়ি জেলার ৩ জন রয়েছেন।

সিভাসুর ল্যাবে রাঙামাটির রাজস্থলীর ৩১ বছর বয়সী পুরুষ, বিলাইছড়ির ২০ বছর বয়সী নারী ও একই এলাকার ১৩ বছর বয়সী কিশোর, ৩৭ বছর ও ৪২ বছর বয়সী দুইজন পুরুষ। খাগড়াছড়িতে ৫৪ বছর বয়সী পুরুষ, মালাইছড়ির ৫৫ বছর বয়সী নারী ও একই এলাকার ২৪ বছর বয়সী পুরুষ। বাঁশখালীতে ৮ মাস ও ২২ মাস বয়সী দুই শিশু, ৫৮ বছর বয়সী পুরুষ, ৫০ বছর বয়সী নারী, ৫৬ বছর বয়সী পুরুষ, ২০ বছর বয়সী যুবতী, ৮৫ বছর বয়সী বৃদ্ধা, ৫ বছর বয়সী ছেলে, ৩০ বছর বয়সী নারী, ৪৮ বছর বয়সী নারী, ৪২ বছর বয়ষী পুরুষ ও ৯০ বছর বয়সী বৃদ্ধ করোনায় শনাক্ত হয়েছেন।

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...