করোনা সচেতনতায় অর্থদণ্ডেও মিলছে না প্রতিকার

0

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সরকারি নিদের্শনা অনুয়ায়ী হাটহাজারীতে সামাজিক দূরত্ব মানছে না সাধারণ জনগণ। প্রতিনিয়তই উপজেলার বিভিন্নস্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করতে হচ্ছে প্রশাসনকে।

অভিযানে ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে অর্থদণ্ডের পাশাপাশি রাস্তার ব্যারিকেড অপসারণ, চায়ের দোকান ও খেলার মাঠে খেলা বন্ধসহ নানা সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। তবুও প্রতিকার মিলছে না বলে প্রশাসনের কর্তারা খুবই বিচলিত।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত উপজেলার সরকারহাট, চারিয়াবাজার, কাজীরখিল, আলাওল দিঘিরপাড় ও পৌরসভা আলীপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালানো হয়। অভিযানকালে তিনটি খেলার মাঠে খেলা বন্ধ করা হয়। বন্ধ করা হয় ছয়টি চায়ের দোকান। এছাড়া সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে বিকাল পাঁচটার পর দোকান খোলা রাখায় দু’জন মুদি দোকানিকে ১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এসময় জব্দ করা হয় দুটি টিভি। অভিযানকালে প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে চায়ের দোকানে আড্ডারতরা পালিয়ে যেতে দেখা গেছে।

এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) শরীফ উল্যাহ।

তিনি জয়নিউজকে বলেন, প্রতিদিন উপজেলায় বিভিন্ন এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করার মাধ্যমে ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে অর্থদণ্ডের পাশাপাশি রাস্তার ব্যারিকেড অপসারণ, চায়ের দোকান ও খেলার মাঠে খেলা বন্ধসহ নানা সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালালেও জনগণ সচেতন হচ্ছে না। এতে আমরা খুব বিচলিত। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে হলে অবশ্যই সবাইকে সচেতন হতে হবে, মেনে চলতে হবে সরকারি নির্দেশনা। জনগণ যদি তা না মানে তাহলে, আমরা আরও বেশি কঠোর হতে বাধ্য হব।

জয়নিউজ/তালেব/বিআর

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...