করোনা: বিশ্বজুড়ে ৬ প্রশ্ন, উত্তর দিলেন বিশেষজ্ঞরা

0

বিশ্বজুড়ে এখন আলোচনার কেন্দ্রে করোনাভাইরাস। গুগলে সার্চ দিয়ে সবাই জানতে চাচ্ছেন এই ভাইরাস সম্পর্কে। তবে লাখো মানুষের লাখো প্রশ্নে বেশ কয়েকটির মিল রয়েছে। প্রায় সবাই এ প্রশ্নগুলো করেন কিংবা জানতে চান। এমন ৬টি প্রশ্ন নিয়েই এ আয়োজন-

উপসর্গ: করোনাভাইরাসের প্রধান লক্ষণের মধ্যে রয়েছে জ্বর এবং শুকনো কাশি। কিছু ক্ষেত্রে গলা ব্যথা, মাথা ব্যথা এবং ডায়রিয়া হতে পারে। করোনাভাইরাস মানুষের গন্ধ নেওয়ার অনুভূতিও হ্রাস করতে পারে।

আক্রান্তের সংখ্যা: সবচেয়ে বেশি জানতে চাওয়া প্রশ্নের একটি এটি। বিশ্বজুড়ে লাখ লাখ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার চিত্র পাওয়া গেলে প্রকৃত সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। কেননা অনেক অ্যাসিম্পটোমেটিক কেস রয়েছে যাদের প্রকৃত সংখ্যা কেউ জানে না। অ্যাসিম্পটোমেটিক কেস হলো যারা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তবে অসুস্থ বোধ করছেন না। শুধুমাত্র অ্যান্টিবডি পরীক্ষার পরই নিশ্চিত হওয়া যাবে প্রকৃত সংখ্যা।

কতটা মারাত্মক: আক্রান্তের সংখ্যাটা ঠিক না হওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর হার সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া প্রায় অসম্ভব। তবে এ মুহূর্তে ধারণা করা হচ্ছে, আক্রান্ত মানুষের প্রায় ১ ভাগ মারা যাচ্ছে।

গ্রীষ্মে প্রকোপ কমবে: শীতেই সর্দি এবং ফ্লু বেশি দেখা যায। তবে গরম আবহাওয়া করোনার বিস্তারকে পরিবর্তিত করবে কিনা তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

শিশুর ঝুঁকি ও সংক্রমণ: অন্যান্য বয়সীদের তুলনায় এ ভাইরাসে শিশুমৃত্যুর ঘটনা কম। তবে শিশু আক্রান্ত হলে সবচেয়ে বেশি রোগের সংক্রমণ ঘটে। কারণ তারা প্রচুর মানুষের সংস্পর্শে আসে।

ভাইরাসটি পরিবর্তিত হবে: সব ভাইরাসই সবসময় পরিবর্তিত হয়। তবে তাদের জিনগত কোডে যেসব পরিবর্তন আসে সেগুলো উল্লেখযোগ্য কোনো পার্থক্য সৃষ্টি করে না। অনেকে মনে করছেন, যত দিন যাবে ভাইরাসের প্রভাব দুর্বল হতে থাকবে। তবে এটি প্রমাণিত তথ্য নয়।

জয়নিউজ

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...