প্রেম করে ওরা এখন শ্রীঘরে!

0

ফেসবুকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রতারণার দায়ে এক চাকমা নারীসহ চক্রের তিন সদস্যকে আটক করেছে আকবরশাহ থানা পুলিশ।

রোববার (১৫ মার্চ) তাদের আটক করা হয়।

এসময় ভুক্তভোগীর কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়া একটি ল্যাপটপ, তিনটি এটিএম কার্ড ও একটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

আটক সদস্যরা হলেন- রাঙামাটির কোতোয়ালির মৃত পুনানন্দ চাকমার মেয়ে প্রিমা চাকমা (২৮), আকবরশাহ থানার রাজা কাশেমের বাড়ির মৃত সৈয়দ গোলাম হায়দারের ছেলে মো. ইকরাম হোসেন ওরফে রিপন (২২) ও নোয়াখালীর সেনবাগের মো. ছাদুর ছেলে মো. আজাদ ওরফে জেসি (৩২)।

আকবরশাহ থানা সুত্রে জানা যায়, রিপন ফেসবুকে বিভিন্ন মেয়েদের নামে প্রথমে ফেসবুকে ফেইক আইডি খোলে। তারপর সে উচ্চবিত্তদের টার্গেট করে তাদের সঙ্গে ফেসবুকে বন্ধুত্ব করে।

এভাবে আস্তে আস্তে সম্পর্ক জমে উঠলে তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে বসে। পরে ফেসবুক প্রেমিকের সঙ্গে দেখা করার কথা বলে নিজেদের টার্গেট করা স্থানে নিয়ে যায়।

এসময় ঘটনাস্থলে কৌশলে লুকিয়ে থাকা চাকমা তরুণী প্রিমাকে দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে। রিপন তার সহযোগীদের নিয়ে ভুক্তভোগীর ( শিপিং কোম্পানির কর্মকর্তা) কাছ থেকে নগদ সাড়ে ৩ হাজার টাকা, বিকাশে ৪৯ হাজার টাকা, তিনটি এটিএম কার্ড ও একটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়।

আকবরশাহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জয়নিউজকে জানান, শিপিং কোম্পানির এক কর্মকর্তা থানায় এসে প্রতারণার মামলা করলে পুলিশ অভিযানে নামে। পরে অকবরশাহ থানা এলাকার বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রিমা চাকমা, রিপন ও আজাদকে আটক করা হয়। প্রিমা চাকমা ৫ বছর ধরে আকবরশাহ থানার সেভেন মার্কেট এলাকায় বসবাস করেন।

প্রিমার পেশা সম্পর্কে জানতে চাইলে পুলিশকে সে কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি। ধারণা করা হচ্ছে ৫ বছর ধরে সে মানুষের সঙ্গে এভাবেই প্রতারণা করে আসছে। এ চক্রের আরও কেউ জড়িত আছে কি-না সেটিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে যোগ করেন ওসি।

জয়নিউজ/কামরুল/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...