কেইপিজেড পরিদর্শনে সিআইইউ’র শিক্ষার্থীরা

0

কোরিয়ান রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল (কেইপিজেড) পরিদর্শন করেছেন চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির(সিআইইউ) মেধাবী শিক্ষার্থীরা। পাঠ্যসূচির বাইরে ব্যবহারিক ও অভিজ্ঞতামূলক জ্ঞানের মাধ্যমে নিজেদের আরও চৌকষ, কর্মঠ ও দক্ষ হিসেবে গড়ে তুলতে সম্প্রতি সিআইইউর উপাচার্যের নেতৃত্বে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একটি প্রতিনিধি দল কেইপিজেড পরিদর্শন করেন  তারা।

এ সময় সিআইইউর উপাচার্য ড. মাহফুজুল হক চৌধুরীকে স্বাগত জানান কেইপিজেডের চেয়ারম্যান কিহাক সাং। শিক্ষার্থীরা বিনিয়োগকারী বিদেশি এ প্রতিষ্ঠানটির বিভিন্ন উৎপাদনমুখী কার্যক্রম সরেজমিনে ঘুরে দেখেন।

পরে শিক্ষামূলক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে তারা প্রতিষ্ঠানটির একাধিক কর্মকর্তা ও শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলেন।
পরিদর্শনকালে সিআইইউর উপাচার্য ড. মাহফুজুল হক চৌধুরী শিক্ষার্থীদের দক্ষ মানবসম্পদে পরিণত করতে তার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে বলে উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, মানবিক গুণসম্পন্ন ও দক্ষ কর্মী হিসেবে ছাত্র-ছাত্রীদের গড়ে তুলতে হলে ইন্ডাস্ট্রি ও কর্পোরেট বিশ্বের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করার ক্ষেত্র বাড়াতে হবে।

দেশের ভবিষ্যৎ উন্নয়নে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ততার জন্য পরিদর্শন কার্যক্রমের কোনো বিকল্প নেই বলে জানান উপাচার্য।
কেইপিজেডের চেয়ারম্যান কিহাক সাং কর্মমুখী শিক্ষার প্রতি গুরুত্বারোপ করে বলেন, অভিজ্ঞতামূলক জ্ঞান একজন শিক্ষার্থীকে নতুন কিছু সৃষ্টিতে অনুপ্রেরণা জোগায়।

তিনি আরও বলেন, রপ্তানিমুখী এই ধরণের বৃহৎ প্রতিষ্ঠানের অর্থনৈতিক কার্যক্রম সরজমিনে পরিদর্শন তরুণ শিক্ষার্থীদের ব্যবহারিক জ্ঞানের প্রসারতা বহগুণ বাড়িয়ে দেবে।

আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি উচ্চশিক্ষা, গবেষণা ও শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মানোন্নয়নে কেইপিজেড-সিআইইউ আগামী দিনে যৌথভাবে সুদূরপ্রসারি পরিকল্পনার উদ্যোগ নেবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন কোরিয়ান ইপিজেড করপোরেশন বাংলাদেশ লিমিটেডের প্রেসিডেন্ট জাহাঙ্গীর সাদাত, ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. শাহজাহান, ইয়ংওয়ানের ম্যানেজিং ডিরেক্টর শেখ শাহিনুর রহমান, সিআইইউর ইনস্টিটিউট অব গভর্নেন্স, ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজের পরিচালক ড. সৈয়দ মনজুর কাদের, বিজনেস স্কুলের সহযোগী অধ্যাপক ড. ইমন কল্যাণ চৌধুরী, স্কুল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. রেজাউল করিম, স্কুল অব ল’র সহকারী ডিন মো. আকতারুল আলম চৌধুরী, ইংরেজি বিভাগের প্রধান সার্মেন রড্রিক্স, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আনজুমান বানু লিমা ও সহকারী পরিচালক মো. আশরাফুল হক প্রমুখ।

জয়নিউজ/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...