জয়নিউজে সংবাদ প্রকাশ: চবিতে আইনি লড়াই শেষে ভর্তি হচ্ছে ৮২ জন

0

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের তিন ইউনিটে মেধাতালিকায় স্থান পাওয়া ৮২ জনের ভর্তিপ্রক্রিয়া সম্পন্ন করার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। উচ্চ মাধ্যমিকে মানোন্নয়ন পরীক্ষা দেওয়ায় ভর্তি আটকে গিয়েছিল এসব ভর্তিচ্ছুর।

রোববার (৯ ফেব্রুয়ারি) পৃথক চার রিটের শুনানি শেষে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। একইসঙ্গে ডি ইউনিটে মানোন্নয়ন দেওয়া ভর্তি পরীক্ষার্থীদের ফলাফল প্রকাশ না করায় রিট আবেদনকারীর ফলাফল প্রকাশ ও সেই অনুযায়ী ভর্তির বিষয়টি বিবেচনা করতে বলা হয়েছে।

রিটকারীদের পক্ষে আইনজীবী জ্যোতির্ময় বড়ুয়া জয়নিউজকে বলেন, তিন ইউনিটের ৮২ জন শিক্ষার্থীর বিষয় নির্বাচন ও ভর্তিপ্রক্রিয়া সম্পন্ন করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আর একজন শিক্ষার্থী আলাদা রিট করেছিলো তার ডি ইউনিটের ফলাফল প্রকাশ ও ভর্তির বিষয়টি বিবেচনা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, চবির ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে মেধা তালিকায় স্থান পান অনেক শিক্ষার্থী। কিন্তু উচ্চমাধ্যমিকে মানোন্নয়ন পরীক্ষা দেওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের ভর্তি বাতিল করে। ২০১৯ সালের ১ নভেম্বর জয়নিউজে ‘ডিনদের ভুলে চবিতে আবেদনের অযোগ্যরাও দিয়েছে ভর্তি পরীক্ষা’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপর আলোচনায় আসে বিষয়টি।

পরে ভর্তি প্রক্রিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নিষ্ক্রিয়তা চ্যালেঞ্জ করে ৮২ জন শিক্ষার্থী (এ,বি,সি ইউনিটে) তিনটি রিট করেন। এছাড়া ডি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া একজন শিক্ষার্থী আলাদা একটি রিট করেন।

জয়নিউজ/নবাব/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...