পাসপোর্ট পেতে সময় লাগছে দ্বিগুণ-তিনগুণ!

0

পাসপোর্ট বইয়ের সংকট দেখা দিয়েছে বহির্গমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের আঞ্চলিক অফিসগুলোতে। নতুন পাসপোর্ট বা নবায়ন করা হলে নির্দিষ্ট সময়ের দুই-তিনগুণ বেশি সময় পরে পাসপোর্ট মিলছে। অনেক ক্ষেত্রে এর বেশি সময়ও লাগছে। তবে দালালের মাধ্যমে করলে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মিলছে পাসপোর্ট।

এতে ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ জনগণ। সময়মতো পাসপোর্ট না পেয়ে তারা বিপাকে আছেন। অনেকের ভিসা, টিকিট নষ্ট হচ্ছে। শিক্ষার্থী ও রোগীরাও নানা সমস্যা পোহাচ্ছেন।

ভুক্তভোগীরা বলছেন, নতুন পাসপোর্ট পেতে ২ থেকে ৩ মাস সময় লাগছে। জরুরি প্রয়োজনেও আমরা পাসপোর্ট পাচ্ছি না। এর একটি সুরাহা প্রয়োজন।

কর্তৃপক্ষ বলছে, সামনে চালু হতে যাওয়া ই-পাসপোর্টকে কেন্দ্র করে এমআরপি (মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট) বইয়ের সংকট সৃষ্টি হয়েছে। তবে সেই সংকট খুব শীঘ্রই কেটে যাবে।

পাসপোর্ট অধিদপ্তর জানায়, আগামী ২২ জানুয়ারি ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর উদ্বোধন করবেন। এরআগে গত বছর কয়েকটি তারিখে ই-পাসপোর্ট চালু হওয়ার কথা থাকলেও তা হয়নি। এ কারণে গত বছরের আগস্ট মাস থেকে সারাদেশে পাসপোর্ট বইয়ের চরম সংকট দেখা দেয়।

সরেজমিন পরিদর্শনে নগরের পাঁচলাইশ ও মনছুরাবাদ পাসপোর্ট অফিস ঘুরে দেখা গেছে ভোগান্তির চিত্র। প্রতিদিন শত শত মানুষ আসছেন তাদের পাসপোর্টের খবর নিতে। কিন্তু কর্তৃপক্ষ কোনো উত্তর দিতে পারছে না। বলছে, ঢাকার সঙ্গে যোগাযোগ করুন।

তবে দালালের মাধ্যমে কাজ করলে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পাসপোর্ট পাওয়া যাচ্ছে।

মনছুরাবাদে পাসপোর্ট নিতে আসা হাটহাজারীর আফরোজা আক্তার জয়নিউজকে বলেন, গত অক্টোবরের মাঝামাঝি আমি নতুন পাসপোর্ট করতে দিয়েছিলাম। দালাল না ধরে নিজে সবকিছু করেছে। এখনো পর্যন্ত আমি পাসপোর্ট পাইনি। তবে আমার পরে এলাকার একজন পাসপোর্ট জমা দিয়ে পেয়ে গেছে।

পাঁচলাইশে কথা হয় বাঁশখালীর এক বৃদ্ধের সঙ্গে। চিকিৎসার জন্য ভারতে যাওয়ার জন্য পাসপোর্ট নবায়ন করতে দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু দুই মাস পেরিয়ে গেলেও এখানা পাসপোর্টের দেখা মিলেনি।

মনছুরাবাদ পাসপোর্ট অফিসের পরিচালকের কক্ষে গিয়ে দেখা গেছে, অনেক মানুষ এসেছেন পাসপোর্ট না পাওয়ার বিষয়ে খবর নিতে। পরিচালক কোনো সদুত্তর দিতে না পারলেও সকলের রিসিভ নম্বর নোট করে নিচ্ছেন। আবার কারো কারো রিসিভ নম্বর ওনার পিএকে দেওয়ার অনুরোধ করছেন।

মনসুরাবাদ বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসের পরিচালক মো. আবু সাইদ জয়নিউজকে বলেন, পাসপোর্ট বই সংকট রয়েছে। তাই নির্ধারিত সময়ে পাসপোর্ট পাওয়া যাচ্ছে না।  তবে জরুরিভিত্তিতে অনেককে পাসপোর্ট পাওয়ার বিষয়ে আমি সহযোগিতা করছি।

জয়নিউজ/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...