১ লাখ ৫ হাজার দরিদ্র পরিবারকে সহায়তা দিচ্ছে চসিক: নগরপিতা

0

সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, বর্তমানে এ নগরে ১৪ লাখ ৪০ হাজার দরিদ্র মানুষ বসবাস করছে। এরমধ্যে ১ লাখ ৫ হাজার হতদরিদ্র পরিবারকে বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে সহায়তা দিচ্ছে চসিক। এই বিপুল হতদরিদ্র মানুষকে বিভিন্ন প্রকল্পে সম্পৃক্ত করা চসিকের একার পক্ষে সম্ভব নয়।

সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) দুপুরে চসিকের আবদুর সত্তার মিলনায়তনে দরিদ্রবান্ধব নগর উন্নয়ন অংশীজন কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি একথা বলেন।

নগরবাসীর ধারণা, এ নগরের সকল দায়-দায়িত্ব সিটি করপোরেশনের উল্লেখ করে মেয়র বলেন চসিকের মূল দায়িত্ব হলো নগরের সড়ক নির্মাণ ও সংস্কার, আলোকায়ন ও পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনা করা। এছাড়াও করপোরেশন নগরবাসীর সন্তানদের কথা বিবেচনা করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও স্বাস্থ্য সেবাকেন্দ্র পরিচালনা করে আসছে। এ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয় নগরবাসীর পৌরকরের উপর ভিত্তি করে।

সিটি মেয়র আরও বলেন, পাঁচ বছর অন্তর অন্তর পৌরকর মূল্যায়ণ আইন আছে, বাস্তবায়ন নেই। বাস্তবায়ন করতে গেলেই সমস্যা আর অভিযোগের পাহাড়। এ সময়ে পাশে একটা লোকও পাওয়া যাবে না। তাই গতানুগতিক আইন পরিবর্তন, পরিমার্জন করে চসিক পৌর কর আইন প্রণয়ন করতে হবে।

মেয়র আরও বলেন, পান-সিগারেট খেতে হাজার টাকা ব্যয় করতে পারে। অথচ পৌর ট্যাক্স দিতে পারে না কতিপয় নগরবাসী। নগরবাসীর মধ্যে এ প্রবণতা পরিবর্তন না হলে এই করপোরেশনের সক্ষমতা কখনো বৃদ্ধি পাবে না। তাই নগরবাসীর মধ্যে এ ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টিতে মিডিয়াকর্মীদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে বলে জানান তিনি।

সভাপতির বক্তব্যে পিপিআরসি নির্বাহী চেয়ারম্যান, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড. হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, নগরবাসির হ্যোল্ডিং ট্যাক্স ছাড়া চসিকের সক্ষমতা আসবে না। তাই তিনি নগরবাসীর মধ্যে হ্যোল্ডিং ট্যাক্স দেওয়ার বিষয়ে গণসচেতনতা সৃষ্টিতে উদ্যোগ নেওয়ার কথা কর্মশালায় উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠিত কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সরকারের সাবেক অতিরিক্ত সচিব মো. আবদুল ওয়াজেদ, ভারতের আইপিই গ্লোবাল প্রজেক্ট ম্যানেজার শ্রীপর্ণা সান্যাল আইয়ার, প্রান্তিক জনগোষ্ঠির জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পের টাউন ম্যানেজার মো. সরওয়ার হোসেন খান, কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, ছালেহ আহমদ চৌধুরী, মো. আজম, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, দৈনিক পূর্বকোণ পত্রিকার সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার ইফতেখারুল ইসলাম, সমাজকর্মী সাহেলা আবেদীন, সিডিসি’র সভাপতি আনোয়ারা আলম ও ফেডারেশনের সভাপতি রেখা আকতার।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চসিক প্যানেল মেয়র জোবাইরা নার্গিস খান, কাউন্সিলর ইসমাইল বালী, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর জেসমিন পারভীন জেসী, জেসমিনা খানম, লুৎফুন্নেছা দোভাষ বেবী, আঞ্জুমান আরা বেগম, সিটি মেয়রের একান্ত সচিব মো. আবুল হাসেমসহ প্রকল্পের প্রতিনিধির সদস্যরা।

উল্লেখ্য, জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচির (ইউএনডিপি) অর্থায়নে পাওয়ার অব পাটিসিপেশন রিসার্চ সেন্টার (পিপিআরসি), আইপিই গ্লোবাল এবং চসিকের যৌথ উদ্যোগে এ কর্মশালায় আয়োজন করা হয়।

জয়নিউজ/কাউছার/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...