‘দেশের প্রতিটি নারী ও শিশু সহিংসতার ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে’

0

আন্তর্জাতিক নারী সহিংসতা অবসান দিবসে নারী ও শিশু ধর্ষণ এবং সকল যৌন সহিংসতার বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে খাগড়াছড়ি নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ মঞ্চ।

সোমবার(২৫ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় জেলা শহরের শাপলা চত্তরে এ মানববন্ধন করেন তারা।

খাগড়াছড়ি কাবিদানের নির্বাহী পরিচালক লালশা চাকমার সভাপতিত্বে ও তৃণমূল সংস্থার সমন্বয়কারী মিনুচিং মারমার সঞ্চালনায় নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক আবু দাউদ, বাংলাদেশ মারমা কাউন্সিল স্টুডেন্টস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক নিঅংগ মারমা, ইয়েস সদস্য নিশি ত্রিপুরা, টিএসএফ সদর শাখার সভাপরি দহেন বিকাশ ত্রিপুরা প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

এসময় বক্তারা বলেন, দেশের প্রতিটি নারী ও শিশু সহিংসতার ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। নারী ও শিশুর উপর সহিংসতার মাত্রা, ধরন ও নিষ্ঠুরতা বহুগুণ বেড়েছে। এর মূল কারণ নারীকে মানুষ হিসেবে গণ্য না করার দৃষ্টিভঙ্গি ও আচরণ। নারী ও শিশুদের প্রতি সহিংসতা বন্ধ ও প্রতিরোধের দায়িত্ব শুধু সরকারের নয় আমাদের সবার। তাই সহিংসতা বন্ধ ও ন্যায়বিচারের দাবিতে সবাইকে সোচ্ছার থাকতে হবে।

এসময় তারা জানান, গত দশ মাসে আইন ও সালিশ কেন্দ্র ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন কর্তৃক সংগৃহিত তথ্য অনুসারে ধর্ষনের শিকার হয়েছে এক হাজার ২৫৩ জন নারী, ধর্ষনের চেষ্টা করা হয়েছে ২০০ জন নারীকে এবং যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে ২২১ জন নারী। এদের মধ্যে দলবদ্ধ ধর্ষনের শিকার হয়েছে ২৫ জন, ধর্ষনের পর হত্যা করা হয়েছে ৬২ জনকে এবং আত্মহত্যা করেছেন ১০ জন। ধর্ষনের প্রতিবাদ করায় খুন হয়েছেন ৩ জন নারী ও ২ জন পুরুষ।

ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৭৬৭জন শিশু। ধর্ষনের চেষ্ঠা করা হয়েছে ১৩৫ জন শিশুকে। যৌন সহিংসতার শিকার হয়েছে ৮০ জন মেয়ে শিশু এবং ২৬ জন ছেলে শিশু।

জয়নিউজ/জাফর/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...