‘চট্টগ্রামের সরকারি হাসপাতালগুলোতে জনবল বাড়ানো হবে’

0

পরিদর্শন শেষে চট্টগ্রাম মেডিকেলের কার্ডিওলজি বিভাগের সেবার মান নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে হাসপাতালের জনবল বাড়াতে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান।

এর আগে জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসা সেবা এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে জনবল বাড়ানো ও চিকিৎসক সংকট নিরসনে পদক্ষেপ নেবেন বলেও জানান তিনি।

শুক্রবার (১০ মে) দুপুর আড়াইটায় চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল ও সাড়ে তিনটায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকের উদ্দেশে এ সব কথা জানান।

পরে তিনি চমেকের শাহ আলম বীরউত্তম মিলনায়তনে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন চট্টগ্রাম শাখা এবং স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

বিকালে জেনারেল হাসপাতাল পরিদর্শন শেষে জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ও সাংসদ মাশরাফিকে ঘিরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চিকিৎসদের অশালীন মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করে তিনি বলেন, সবচেয়ে মেধাবী ও মায়ের ভালো সন্তানটি চিকিৎসক হবে, এটাইতো আমাদের চাওয়া। কিন্তু আমাদের আচরণ, লেখা এতো নোংরা ও অশ্লীল হবে কেন? একজন চিকিৎসকের কাছ থেকে এমন আচরণ কখনই কাম্য ছিল না।

বিকালে মতবিনিময় সভায় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, একটি অভিযোগই শুধু আমর পাই, যে ডাক্তার নেই। তাই বায়োমেট্রিক চালু করছি। ডাক্তারদের অসম্মানিত করার কোন উদ্দেশ্য নেই।

চমেকে জনবল এবং শয্যা সংকটের বিষয়ে তিনি বলেন, এ হাসপাতালে শয্যা সংখ্যা বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। চট্টগ্রামে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হলে সংকট অনেকটাই কেটে যাবে। ভবিষ্যতে এখানে পেডিয়াট্রিকসহ সব ধরনের সার্জারি হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, চমেকে অত্যাধুনিক আইসিইউ, সিসিইউ হবে। বেডের সংখ্যাও বাড়বে।

অন্য পেশার সঙ্গে চিকিৎসা পেশার তুলনা না করার জন্য চিকিৎসকদের অনুরোধ করেন প্রতিমন্ত্রী।

এসময় প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহসীন উদ্দিন চৌধুরী ও চমেকের অধ্যক্ষ সেলিম মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর এবং বিএমএ ও স্বাচিপের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

জয়নিউজ/পার্থ/জুলফিকার
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...