তারেক রহমানের অর্থ পাচারের কথা সারা দুনিয়ার মানুষ জানে: কাদের

0

বাবা ও এক ছেলের টাকার গল্প শোনালেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শনিবার (২২ জুলাই) বিকেলে নোয়াখালী জিলা স্কুল মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ গল্প বলেন।

তিনি বলেন, গল্পটি বাবা ও তার ছেলের। বন্দুক উঁচিয়ে ক্ষমতায় বসে পিতা জেনারেল জিয়াউর রহমান দম্ভ করে বলেছিলো ‘মানি ইস নো প্রবলেম’ টাকা কোনো সমস্যা নয়। আর আজ লন্ডনে বসে জিয়াউর রহমানের পলাতক ছেলে তারেক রহমান গতকাল স্কাইপে বলেছে টাকার কোনো অভাব হবে না। বাবা যা বলেছেন, ছেলেও তাই বলছেন। এত টাকা এলো কোত্থেকে?

তারেক রহমান ১৬ বছর আগে মুচলেকা দিয়ে লন্ডনে পালিয়ে গেছেন আর রাজনীতি করবে না এই অঙ্গীকার করে। সেই তারেক রহমান বলে টাকার কোনো অভাব হবে না। আন্দোলন করে করে শেখ হাসিনার পতন ঘটাবে তাই ফরমাইশ দিয়েছে বিএনপির নেতাকর্মীদের। আজকে টাকার দম্ভ দেখাচ্ছে। টাকা হলে নাকি আন্দোলন করতে পারবে। এত টাকা কোথা থেকে এলো? তিনি কোটি কোটি টাকা পাচার করেছেন। সেই টাকার মধ্যে ৪০ কোটি টাকা শেখ হাসিনা উদ্ধার করেছেন। তারেক রহমানের অর্থ পাচারের কথা সারা দুনিয়ার মানুষ জানে। কোথা থেকে এলো বাড়ি, গাড়ি, এত কিছু। এসব দুর্নীতির টাকা, পাচারের টাকা, হাওয়া ভবনের টাকা। এই অপশক্তি রুখতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সৎ-সাহসী, মানবি নেতা আখ্যা দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশে একমাত্র সৎ, সাহসী, মানবি একজন মাত্র নেতা ৭৫ এর পর তিনি বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা। একমাত্র সততার জন্য, সাহসের জন্য, উন্নয়নের জন্য, দক্ষতার জন্য, কৌশলের জন্য ও ডিপ্লোম্যাসির জন্য পুরো বাংলাদেশে একজন মাত্র নেতা তিনি। আজকে প্রশংসা হচ্ছে, শুধু বাংলাদেশ নয়, বিদেশিরাও শেখ হাসিনার প্রশংসা করেন।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামকে উদ্দেশ্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, খেলা হবে, খেলা হবে, খেলা হবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে। খেলা হবে লুটপাটের বিরুদ্ধে, খেলা হবে সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে, খেলা হবে হাওয়া ভবনের বিরুদ্ধে। খেলা হবে, মোকাবিলা হবে, ফাইনাল খেলা হবে ডিসেম্বরে। অপেক্ষা করুন ফখরুল সাহেব। যত মিথ্যা বলে যাচ্ছেন এই মিথ্যাই আপনাদের পতন ঘটাবে। প্রস্তুত হয়ে যান মোকাবিলার জন্য।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খাইরুল আনম চৌধুরী সেলিমের সভাপতিত্বে ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র সহিদ উল্যাহ খান সোহেলের সঞ্চালনায় শান্তি সমাবেশে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহিম, নোয়াখালী-২ (সেনবাগ-সোনাইমুড়ী) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোরশেদ আলম, নোয়াখালী-৩ (বেগমগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য মামুনুর রশীদ কিরণ, নোয়াখালী-৬ (হাতিয়া) আসনের সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদাউস, সংসদ সদস্য (সংরক্ষিত) বেগম ফরিদা খানম সাকী, ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিন, হাতিয়ার সাবেক এমপি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশে জেলা, উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের অর্ধ লক্ষাধিক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, দুই দিনের সফরে শনিবার (২২ জুলাই) সকালে ওবায়দুল কাদের হেলিকপ্টার যোগে কবিরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে অবতারণ করেন। এরপর কবিরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের শান্তি, উন্নয়ন ও সুধী সমাবেশে যোগদান করেন। এরপর দুপুরে পুলিশ লাইন্সে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল উদ্বোধন করেন এবং জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশে যোগদান করেন। রোববার (২৩ জুলাই) সকালে বাবা-মায়ের কবর জিয়ারাত শেষে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের শান্তি, উন্নয়ন ও সুধী সমাবেশে যোগদান করবেন।

জেএন/এমআর

KSRM
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...
×KSRM