আখেরি মোনাজাতে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা

বিশ্ব ইজতেমা

0

গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগতীরে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে লাখো মানুষের অংশগ্রহণে আখেরি মোনাজাত শেষ হয়েছে।

মোনাজাত পরিচালনা করেন ইজতেমায় তাবলিগের শীর্ষ মুরব্বি দিল্লির মাওলানা সাদ কান্ধলভীর বড় ছেলে মাওলানা ইউসুফ কান্ধলভী। এর আগে তিনি হেদায়েতি বয়ান করেন। হেদায়েতি বয়ান বাংলায় তরজমা করেন মাওলানা আব্দুল্লাহ মনসুর।

আখেরি মোনাজাতে দেশ, জাতি ও মানবতার জন্য দোয়া করা হয়। বিশ্ব শান্তি ও কল্যাণ চেয়ে মহান আল্লাহর দরবারে আকুতি জানান, পাপ থেকে মুক্তির মিনতি জানান। এ সময় লাখো মুসল্লির কণ্ঠে আমিন আমিন ধ্বনিতে প্রকম্পিত হয়ে উঠে ইজতেমা ময়দান। আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে বাড়তি নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে।

রোববার (২২ জানুয়ারি) দুপুর সোয়া ১২টার দিকে দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত শুরু হয়েছে। আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব।

এদিকে বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে রোববার সকাল থেকেই দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ধর্মপ্রাণ মানুষেরা ইজতেমার মাঠে উপস্থিত হয়েছেন। ভোর ৬টার দিকে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী, সায়েদাবাদ থেকে ছেড়ে আসা আবদুল্লাহপুর-টঙ্গীগামী প্রতিটি বাসে ছিল ব্যাপক ভিড়। রামপুরা, বাড্ডা, নতুনবাজার এলাকায় অনেক মানুষকে বাসের জন্য অপেক্ষা করতে দেখা গেছে। এ ছাড়া মেট্রোরেলেও ভিড় ছিল লক্ষণীয়। বাড্ডা, রামপুরা ও নতুনবাজার এলাকায় যারা বাসের জন্য অপেক্ষা করছেন তাদের কেউ কেউ বাসে উঠতে পারলেও অনেকের স্থান হয়নি। উপায় না পেয়ে কেউ কেউ বাইকে আবারও কেউ রিকশা বা হেঁটে আখেরি মোনাজাতে যোগ দেন।

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে মুসল্লিদের ভিড়ও। বিভিন্ন যানবাহন ও পায়ে হেঁটে ইজতেমা ময়দানের দিকে ছুটেতে থাকেন তারা। এ ছাড়া এরই মধ্যে তাবলিগ জামাতের সঙ্গে কয়েক লাখ মুসল্লি খিত্তায় খিত্তায় ময়দানে অবস্থান নিয়েছেন। ঢাকা ছাড়াও দেশের নানা প্রান্ত থেকে বহু মানুষ আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে ইজতেমা ময়দানে আসেন।

বিশ্ব ইজতেমাকে ঘিরে টঙ্গী ও আশপাশের এলাকায় ধর্মীয় উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। আল্লাহু আকবর ধ্বনিতে প্রকম্পিত হয়ে উঠেছে টঙ্গীর আকাশ বাতাস। বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে পাঁচটি স্পেশাল ট্রেন পরিচালনা করছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। সেই সঙ্গে আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে ঢাকা ছেড়ে যাওয়া ও ঢাকায় প্রবেশের সময় সব ট্রেন টঙ্গী রেলস্টেশনে থামবে। এছাড়া আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে ‘মোনাজাত স্পেশাল’ নামে বিশেষ ট্রেন পরিচালিত হবে।

শুক্রবার (২০ জানুয়রি) শুরু হয়ে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। সেদিন বাদ ফজর পাকিস্তানের মাওলানা ওসমানের আম বয়ানের মধ্য দিয়ে ইজতেমার এই পর্বের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। ইজতেমায় আসা মুসল্লিরা মনোযোগ সহকারে ধর্মীয় বয়ান শোনেন। সেখানে শুক্রবার দেশের সর্ববৃহৎ জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।

এরপর থেকে দুই দিন ইসলামের নানা হুকুম আহকাম নিয়ে বয়ান করেন বিভিন্ন দেশের ইসলামী আলোচকরা। বিশ্বের সব মুসলমানকে আল্লাহ যেন দ্বীনের পথ দেখান এমনটাই প্রত্যাশা করেন মুরব্বিরা।

বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাতকে ঘিরে শনিবার মধ্যরাত থেকে গাজীপুরের কয়েকটি রুটে যান চলাচল বন্ধ রাখতে নির্দেশনা দেওয়া হয়।

জেএন/এমআর

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...