১ কোটি ২৩ লাখ ভুয়া ভোটার করেছিল বিএনপি-জামায়াত: জয়

0

২০০৭ সালের ২২ জানুয়ারি সাজানো নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতা দখলের জন্য বিএনপি-জামায়াত ১ কোটি ২৩ লাভ ভুয়া ভোটার তালিকা প্রস্তুত করেছিল বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তার তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। এমনকি খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা ও বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী দুই স্থানে ভোটার হয়েছিলেন বলে জানান তিনি।

শুক্রবার (১১ নভেম্বর) ফেসবুকে নিজের ভেরিফায়েড পেজে এক পোস্টে এসব কথা বলেন তিনি।

সাকা চৌধুরীর বিষয়ে জয় লিখেছেন, খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা ও বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী দুই স্থানে ভোটার হন। চট্টগ্রাম-৪ ফটিকছড়ি এবং চট্টগ্রাম-৭ রাঙ্গুনিয়া দুই আসন থেকে ভোট করার জন্য মনোনয়ন তুলেছিল সে। এরপর তার ডাবল ভোটার হওয়ার তথ্য ফাঁস হয়ে পড়ে। নির্বাচন কমিশনের কর্তকর্তারা এই ঘটনাকে প্রতারণা ও বেআইনি বলে অভিহিত করেন।

প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা বলেন, ২০০৭ সালের ১১ জানুয়ারির প্রথম আলো পত্রিকার এক সংবাদে এই তথ্য জানা যায়। নির্বাচন কমিশনাররা বলেন, ‘একজন ব্যক্তি সর্বোচ্চ পাঁচটি আসন থেকে নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে অংশ নিতে পারেন। কিন্তু তিনি ভোটার হবেন যেকোনো একটি স্থানের। একজন ব্যক্তি দুই জায়গায় ভোটার হতে পারেন না। এটি সাংবিধানিকভাবে অবৈধ। এটি এক ধরণের প্রতারণা।’

অবৈধভাবে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্যই বিএনপি ভুয়া ভোটার করেছিল জানিয়ে জয় লিখেছেন, বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মীরা এভাবেই অনেকে একাধিক স্থানের ভোটার হয়েছেন এবং ভুয়া নাম-পরিচয় দিয়ে প্রায় ১ কোটি ২৩ লাখ ভোটার তালিকা তৈরি করে তারা। কারণ এই ভোটগুলো দলীয় ক্যাডারদের মাধ্যমে কাস্ট করে অবৈধভাবে বিএনপিকে ক্ষমতায় নেওয়ার পরিকল্পনা ছিল তাদের। এজন্য রাষ্ট্রপতি ইয়াজউদ্দিন আহমেদকে অসাংবিধানিকভাবে প্রধান উপদেষ্টার পদে বসায় তারা। এরপর খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের তালিকা অনুযায়ী নির্বাচন পরিচালনার জন্য দলীয় সমর্থনপুষ্ট কর্মকর্তাদের নিয়োগ দেয়া হয়।

জেএন/এমআর

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...