বোলারদের দাপটে শ্বাসরুদ্ধকর জয় পাকিস্তানের

0

করাচিতে অনুষ্ঠিত হওয়া শেষ ম্যাচে মোহাম্মদ রিজওয়ান ও বোলারদের দাপটে শ্বাসরুদ্ধকর এক লড়াইয়ে জিতে সিরিজে সমতায় ফিরে পাকিস্তান। সেই ম্যাচের কিছুটা চিত্রায়ণের দেখা মিলল লাহোরেও।

শেষ ওভারে যখন জয়ের জন্য ইংলিশদের প্রয়োজন ১৫ রান তখন বল তুলে দেয়া হলো নিজের অভিষেক ম্যাচে দ্বিতীয় বলেই উইকেট তুলে নেয়া পেস অলরাউন্ডার আমির জামালের হাতে।

তাতেই ফুল মার্কে পাস করলেন অভিষিক্ত আমির। সেই সঙ্গে দলকে জয় পাইয়ে দিয়ে সিরিজে এগিয়ে নিলেন।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায়। টস হেরে আগে ব্যাটিং করে রিজওয়ানের অর্ধশতরানে ভর করে পাকিস্তান ১৪৫ রানে অলআউট হয়ে যায়।

জবাবে ইংলিশরা ৭ উইকেট হারিয়ে ১৩৯ রানে থামে। ফলে পাকিস্তান জয় পায় ৬ রানে। ৭ ম্যাচের সিরিজে ৩-২ এ এগিয়ে পাকিস্তান।

শেষ ওভারে ইংলিশদের জয়ের জন্য প্রয়োজন ১৫ রানের। যেখানে স্ট্রাইকে রয়েছে অলরাউন্ডার মঈন আলী। যিনি কিনা আগের দুই ওভারে হারিস রউফ ও মোহাম্মদ ওয়াসিমদের পিটিয়েছিলেন বেধড়ক।

সেখানে শেষ ওভারে আমির জামালের হাতে বল তুলে দিয়ে একপ্রকার জুয়াই খেলেন বাবর আজম। আর সেখানে পুরো মার্কসে পাস আমির। পুরো ওভারে দেন মাত্র ৮ রান। পাকিস্তান জয় পায় ৬ রানে। আর সিরিজে এগিয়ে যায় ৩-২ এ।

এর আগে লাহোরে আগে ব্যাট করে ১৯ ওভারে ১৪৫ রানে অল আউট হয়। পাকিস্তানের পক্ষে মোহাম্মদ রিজওয়ান করেন ৬৩ রান। রিজওয়ান ৪৬ বলে ২ চার আর ৩ ছক্কায় ৬৩ রানের ইনিংস খেলেন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চলমান সিরিজে এটি রিজওয়ানের চতুর্থ ফিফটি, সেপ্টেম্বর মাসে সপ্তম।

ইংল্যান্ড সিরিজের আগে এশিয়া কাপে পাঁচ ম্যাচ খেলে তিন ফিফটি হাঁকিয়েছিলেন এই ব্যাটার। সব মিলিয়ে চলতি মাসে খেলা ১০ টি-টোয়েন্টিতে তার মোট রান ৫৫৩। যা সাত বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে করা ২ হাজার ২৫৮ রানের ২৪.৪৯ শতাংশ!

এছাড়া অধিনায়ক বাবর আজম করেন মাত্র ৯ রানে। বাকি ব্যাটারদের মধ্যে কেবল ইফতিখার আহমেদ (১৫) আর আমির জামালই (১০) দুই অংক ছুঁতে পেরেছেন।

ইংলিশ বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল মার্ক উড। ২০ রান খরচায় ৩ উইকেট নেন এই পেসার। দুটি করে উইকেট শিকার স্যাম কুরান আর ডেভিড উইলির।

জেএন/পিআর

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...