সিভিল সার্জন কার্যালয়ে ক্ষুদে ডাক্তার কার্যক্রম বিষয়ক এডভোকেসী সভা অনুষ্ঠিত

0

আগামী ২০-২৫ আগস্ট পর্যন্ত অনুষ্ঠিতব্য ক্ষুদে ডাক্তারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা কার্যক্রম-২০২২ পালন উপলক্ষে জেলা পর্যায়ে এডভোকেসী সভা আজ রোববার (১৪ আগস্ট) সকাল ১১টায় নগরীর আন্দরকিল্লাস্থ চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্টিত হয়।

সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও জেলা স্বাস্থ্য তত্ত্বাবধায়ক সুজন বড়ুয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্টিত সভায় মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের এমওডিসি ডা. মোহাম্মদ নুরুল হায়দার। স্বাগত বক্তব্য রাখন লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ হানিফ।

রিসোর্স পারসন হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ ফরিদুল আলম হোসাইনী, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এসআইএমও ডা. এফ.এম জাহিদুল ইসলাম, সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডা. মোঃ নুর উদ্দিন, বিভাগীয় টিবি এক্সপার্ট ডা. বিপ্লব পালিত।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কর্ণফুলী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বাবুল চন্দ্র নাথ, রাউজান উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আবদুল কুদ্দুছ ও বোয়ালখালী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার গোলাম রহমান চৌধুরী প্রমূখ। সভায় বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, প্রতিনিধি, শিক্ষক, স্যানিটারী পরিদর্শক, স্বাস্থ্য পরিদর্শক, স্বাস্থ্য কর্মী এবং এনজিও প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার ফাইলেরিয়াসিস নির্মূল, কৃমি নিয়ন্ত্রণ ও ক্ষুদে ডাক্তার কার্যক্রমের বাস্তবায়নে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় এডভোকেসী সভার আয়োজন করেন।

সভায় সভাপতির বক্তব্যে জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরী বলেন, জেলার প্রত্যেক উপজেলার প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ক্ষুদে ডাক্তার টিম গঠন করা হবে। সংশ্লিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও শিক্ষা অফিসারদের সমন্বয়ে বিদ্যালয়ের ৩য় থেকে ১০ম শ্রেণির শিক্ষাথীদের মধ্যে থেকে বাছাই করে ক্ষুদে ডাক্তার নির্বাচন করা হবে। প্রতিষ্টানের প্রধান শিক্ষকের পরামর্শ নিয়ে শিক্ষার্থীদের ওজন মাপানো, উচ্চতা নিধারণ, দৃষ্টিশক্তি ও পুষ্টিহীনতা নির্ণয়সহ স্বাস্থ্য পরীক্ষায় তারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। নিজেরা নিজের স্বাস্থ্য সম্পর্কে সজাগ থাকার পাশাপাশি পবিার ও সমাজকে এ বিষয়ে সচেতন করবে। স্বাস্থ্য কর্মীরা নির্দিষ্ট সময়ে বিদ্যালয়গুলো পরিদর্শনের মাধ্যমে ক্ষুদে ডাক্তারদের কার্যক্রম তদারকি করবে। একই সাথে স্বাস্থ্য পরীক্ষার তালিকা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থার জন্য সংশ্লিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করতে প্রতিষ্টান প্রধানকে আন্তরিক থাকতে হবে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা এবং স্বাস্থ্য পরিদর্শকগণকেও এ ব্যাপারে সদৃষ্টি রাখতে হবে। সকলের আন্তরিক সহযোগিতায় তৃনমূল পর্যায় থেকে ক্ষুদে ডাক্তার কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে পারলে স্বাস্থ্য বিভাগের কার্যক্রমে আমুল পরিবর্তন আসবে।

জেএন/কেকে

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...