সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে আজ বাংলাদেশ-ভারত লড়াই

0

বাংলাদেশ ভারত সম্পর্ক যুগযুগের। রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক এবং খেলা, যে কোনো দিক ধেকে দুই দেশের সঙ্গে সম্পর্ক বিদ্যমান। খেলার সময় এলে দুই দেশের মাঠের লড়াইটায় বাড়তি আমেজ থাকে। ক্রিকেট কিংবা ফুটবল। মূলত এই দুটিতে খেলারযুদ্ধ হয়। আজ ভারতের মাটিতে তরুণ ফুটবলারদের যুদ্ধ হবে। যাদের বয়স অনূর্ধ্ব-২০, তাদের মধ্যে লড়াই হবে শ্রেষ্ঠত্ব নিয়ে। সাফ অনূর্ধ্ব-২০ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল আজ । ভারতের ভুবনেশ্বরে কালিঙ্গা স্টেডিয়ামে খেলা সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় শুরু হবে।

নেপাল, শ্রীলঙ্কা এবং মালদ্বীপ বিদায় নিয়েছে। এবার দুই প্রতিবেশীর লড়াই। তারুণ্যের ঝান্ডা ওড়াবার লড়াই।

বাংলাদেশের তরুণ ফুটবলাররা টানা ম্যাচ জিতে ফাইনালে উঠেছে অপরাজিত দল হিসেবে। আর ভারত হারের মুখ দেখেছে বাংলাদেশের বিপক্ষে। এবার অন্যরকম ফাইনাল। রোমাঞ্চ ছড়াতে পারে। বাংলাদেশের চেয়ে ভারত শক্তিশালী হলেও তাদের বিপক্ষে লড়াইয়ের জন্য মুখিয়ে রয়েছে রফিকুল ইসলাম, শাহিন মিয়া, তানভীর হোসেন, মইনুল ইসলাম, মুরশেদ আলী, অনন্ত, পিয়াস আহমেদ নোভা, আক্কাস আলীরা। বাংলাদেশের শহিদুল ইসলাম নেপালের ম্যাচে লাল কার্ড পেয়েছিলেন। তাকে ছাড়া মাঠে নামতে হবে। দলের হেড কোচ অস্ট্রেলিয়ান পল থমাস স্মলি অবশ্য এটা নিয়ে খুব বেশি ভাবছেন না। কারণ তার রিজার্ভ বেঞ্চ ভালো। আক্রমণভাগে শহিদুল ইসলামের না থাকাটা পুষিয়ে নিতে পারবেন বলে মনে করছেন কোচ। তিনি বলেন, ‘আমরা ভারতের সব ম্যাচ দেখেছি। কৌশলটা কী হবে, তা নিয়ে আমাদের ভাবনা রয়েছে।’ দলের দুই স্ট্রাইকার মিরাজুল ইসলাম এবং পিয়াস আহমেদ নোভা ৭ গোল করেছেন। গোলের মধ্যে রয়েছেন এই দুই স্ট্রাইকার। ভারতের বিপক্ষে জোড়া গোল করেছিলেন নোভা। মিরাজুলও মুখিয়ে আছেন আজ ভারতের জালে বল জড়াবেন বলে।

বাংলাদেশের রক্ষণভাগের অধিনায়ক তানভীর হোসেনের জন্য ভালো খবর হতে পারে ভারতের মূল স্ট্রাইকার পার্থিব সুন্দর গোগোই মালদ্বীপের বিপক্ষে খেলার শেষ মুহূর্তে লালকার্ড পেয়েছিলেন। তিনি আজ মাঠে নামতে পারবেন না। আই লিগ খেলা পার্থিব নামতে না পারলেও ভারতের ঘরে রয়েছে ফুটবল শক্তির অস্ত্র। গুরকিরাত সিং আগেও বাংলাদেশের জালে গোল করেছেন। সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগবেন। দলের কোচ শানমুগান ভেঙ্কেটশ সাফ খেলেছেন। শিরোপা পেয়েছেন। পরে জাতীয় দলের সহকারী কোচের ভূমিকায় ছিলেন। সেই শানমুগান ভেঙ্কেটশ এখন তরুণ ফুটবলারদের গড়ে তোলার দায়িত্ব নিয়েছেন। গতকাল ভুবনেশ্বরে সংবাদ সম্মেলনে ভেঙ্কেটশ বলেন, ‘আমি আমার ফুটবল ক্যারিয়ার কোচিং ক্যারিয়ারের অবিজ্ঞতার কথাগুলো আমাদের ছেলেদের কাছে তুলে ধরেছি। এধরনের ফাইনাল বেশ রোমাঞ্চকর। সঙ্গে এটাও জানিয়েছি ফাইনালে উঠে গেছ বলে এখানে আত্মতুষ্টির সুযোগ নেই।’ ভারতের ডিফেন্ডার হালেন নঙ্কটডু বলেছেন, ‘আমরা অতিআত্মবিশ্বাসে ভুগছি না। আমাদেরকে আরো নমনীয় হতে হবে। বাংলাদেশ ভালো দল। আমাদেরকে বুঝতে হবে, আমাদেরকে পরিকল্পনা মাফিক খেলতে হবে। আমরা এখনো নতুন নতুন শিখছি।

২০১৯ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে অনূর্ধ্ব-১৮ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত ২-১ গোলে হারিয়েছিল বাংলাদেশকে। সেবার প্রথম ট্রফি জয় করে ভারত। বাংলাদেশ শেষ মুহূর্তে দ্বিতীয় গোল হজম করে ম্যাচ হেরেছিল। এই আসরেও গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশ ভারত মুখোমুখি হয়েছিল, সেই খেলাটটি গোল শূন্য ড্র হয়েছিল।

২০১৭ সালে ভুটানে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৮ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত হেরেছিল নেপালের কাছে। এই টুর্নামেন্টের বাংলাদেশ ৪-৩ গোলে ভারতকে হারিয়েছিল। নেপালে ২০১৫ সালে সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ চ্যাম্পিয়নশিপে টাইব্রেকারে বাংলাদেশ হেরেছিল ভারতের কাছে। ফাইনালে ভারত টাইব্রেকারে নেপালের কাছে হেরে যায়।

জেএন/কেকে

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...