শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার পাচ্ছেন ৯ জন ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব ও ২টি প্রতিষ্ঠান

0

২০২২ সালে শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কারের জন্য ৭টি ক্যাটাগরিতে ৯ জন ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব ও ২টি প্রতিষ্ঠানকে মনোনীত করেছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জ্যেষ্ঠ পুত্র এবং বাংলাদেশের আধুনিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনের পথিকৃৎ মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল এর ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আগামীকাল সকাল ৯.০০টায় রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কারের বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হবে। অনুষ্ঠানে গনভবন থেকে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ সভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি মনোনীতদের নাম ঘোষনা করেন।

শহীদ শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার ২০২২’র জন্য এবার আজীবন সম্মাননা পাচ্ছেন বর্ষিয়ান ক্রীড়া সংগঠক হারুনুর রশীদ।

এছাড়া অন্যান্যরা হলেন :

ক্রীড়াবিদ : লিটন কুমার দাস (ক্রিকেট), আব্দুল্লাহ হেল বাকি (শ্যুটিং) ও মোল্লা সাবিরা সুলতানা (ভারোত্তোলন)
উদীয়মান ক্রীড়াবিদ : দিয়া সিদ্দিকী (আর্চারী), মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম (ক্রিকেট)
ক্রীড়া সংগঠক : মো: সাইদুর রহমান প্যাটেল ও নাজমা শামীম
ক্রীড়া এসোসিয়েশন/ফেডারেশন/ক্রীড়া সংস্থা : বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশন
ক্রীড়া পৃষ্ঠপোষক : গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড
ক্রীড়া সাংবাদিক : কাশীনাথ বসাক

বিজয়ীদের প্রত্যেককে এক লাখ টাকা, একটি ক্রেস্ট ও সম্মাননা সনদ তুলে দেয়া হবে।

শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে গত বছর প্রথমবারের মত জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কারের প্রবর্তন করে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। ক্রীড়াঙ্গানে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ সুনির্দিষ্ট নীতিমালার আলোকে সংশ্লিষ্ট কমিটি কর্তৃক যাচাই বাছাই করেই এই পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের চূড়ান্ত করা হয়। সাধারণত জাতীয় ক্রীড়া পুরষ্কার প্রাপ্তদের এখানে বিবেচনা করা হয়না বলে জানিয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি। এছাড়া বর্তমান খেলোয়াড়দেরর উৎসাহিত করার লক্ষ্যে এখানে পুরস্কারের জন্য বেছে নেয়া হয় যা সাধারণত জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারের ক্ষেত্রে বিবেচ্য নয়।

২০২০ সাল থেকে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সরকারীভাবে প্রথমবারের মত শহীদ শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী উদযাপন শুরু করে এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবনার প্রেক্ষিতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ শেখ কামালের জন্মদিন ৫ আগস্টকে ‘ক’ শ্রেণীভূক্ত দিবস হিসেবে জাতীয়ভাবে উদযাপনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।

শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মেজবাহ উদ্দিন, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (ক্রীড়া) মো: নজরুল ইসলাম ও জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব পরিমল সিংহ।

জেএন/কেকে

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...