সিরিজ হারায় ক্রিকেটারদের উপর চটেছেন সুজন

0

অভিজ্ঞদের বিশ্রাম দিয়ে তরুণ ক্রিকেটারদের নিয়ে ঢেলে সাজানো দল নিয়ে জিম্বাবুয়ে সিরিজ খেলতে পাঠানো হয়েছিলো। নতুন কিছু বিস্ময় সৃষ্টির লক্ষ্যে এ দল পাঠিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

উদ্দেশ্য সফল হয়নি,বরং জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারের স্বাদ পেয়েছে টাইগাররা। তরুণ দলের প্রথম সিরিজে তুলনামূলক সহজ প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়েকে পেয়ে সন্তষ্ট মনে হয়েছিল বোর্ড কর্মকর্তাদের।

তবে সেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই সিরিজ হারায় ক্রিকেটারদের উপর চটেছেন দলের ম্যানেজার ও বোর্ড পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন।

বিসিবির ফেসবুক পেজে পাঠানো এক বার্তায় সিরিজ হারায় হতাশা প্রকাশ করেছেন সুজন। সিরিজ হারের দায় পুরো ক্রিকেটারদের বলে মনে করেন তিনি।

সুজন বলেন, “আমি খুব হতাশ। আমরা বারবার বলি নিজেদের ভুল থেকে শিক্ষা নিতে। কিন্তু আমরা কবে সে শিক্ষাটা নেব। আমি পুরোপুরি ক্রিকেটারদের দোষ দেব। তাদের এক্সিকিউশনে সমস্যা ছিল।”

শেষ ম্যাচে পুরো ইনিংসে বাংলাদেশ মাত্র একটি ছয় মেরেছে, যেটা এসেছে আট নম্বরে ব্যাটিং করতে নামা শেখ মেহেদীর ব্যাট থেকে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হার সুজনের কাছে একদমই অস্বাভাবিক বিষয়।

ইনিংসের মাঝপথে পরিস্থতি বুঝে ব্যাটিং না করায় সমালচোনা করেন তিনি। নিজের জন্য নয় দলের জন্য খেলার তাগিদ সুজনের।

“এখানে আমাদের জেতাটাই স্বাভাবিক ছিল। হারটা ছিল অস্বাভাবিক। আমরা জানি যে ওভারে আমাদের ১০-১২ করে লাগবে। কেউ দেখলাম যে একটাও ছয় মারার চেষ্টা করছে না। সবাই ২-১ করে নিচ্ছে।

আমি একটা স্কোর করে নিজের জায়গাটা ঠিক রাখলাম, এটা কি ওই ধরনের কিছু কি না, আমি ঠিক জানি না” যোগ করেন সুজন।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে স্ট্রাইক রেটটা গুরুত্বপূর্ণ বলে মত সুজনের। এখানে ১০০ স্ট্রাইক রেটে ব্যাটিং করে রান তাড়া করা সম্ভব নয় বলে মনে হয় তার। শর্ট বলের বিপক্ষে আত্মবিশ্বাস না থাকলেও টি-টোয়েন্টিতে ভালো করা কঠিন বলে মনে করেন টাইগারদের ম্যানেজার।

সুজন বলেন, “আপনি যদি ১০০ স্ট্রাইক রেটে খেলেন, তাহলে এখানে রান তাড়া করে জিততে পারবেন না। একজন-দুজনকে তো শট খেলতে হবে। ওদের দুজন ব্যাটারের স্ট্রাইক রেট দেখুন। এখানে ভিন্ন কিছু করার প্রয়োজন ছিল না। শর্ট বলকে যদি পুল করে ছক্কা মারার আত্মবিশ্বাস না থাকে, তাহলে তো মুশকিল।”

টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারার পর বাংলাদেশ এখন প্রস্তুতি নিচ্ছে ওয়ানডে সিরিজের। শুক্রবার (৫ আগস্ট) তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ৭ ও ১০ আগস্ট অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের বাকি দুই ম্যাচ।

জেএন/পিআর

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...