রথযাত্রায় ছুটিসহ ৯ দাবি ইসকনের

0

রথযাত্রায় একদিনের সরকারি ছুটি ঘোষণাসহ ৯ দফা দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামমৃত সংঘ (ইসকন)।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) সকালে ইসকন প্রবর্তক শ্রীকৃষ্ণ মন্দির মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলন থেকে এসব দাবি জানানো হয়।

দাবিগুলো হলো, রথযাত্রায় এক দিনের সরকারী ছুটি ঘোষণা, সাম্প্রদায়িক হামলায় ক্ষতিগ্রস্থ মঠ মন্দির সরকারী অর্থায়নে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে পুনর্নিমাণ, দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষা ও সংরক্ষণ, প্রতিটি উপজেলায় সরকারী অনুদানে কেন্দ্রিয়ভাবে মন্দির নির্মাণ, ঐতিহ্যবাহী তীর্থস্থানসমূহ রক্ষা ও সংরক্ষণ, সাম্প্রদায়িক হামলা বন্ধে কঠোর আইন ও সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড, ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে হিন্দুদের হয়রানি বন্ধ ও জেলে থাকা নিরপরাধীদের নিঃশর্ত মুক্তি, হিন্দুদের টার্গেট করে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকদের হয়রানি বন্ধ ও শিক্ষাব্যবস্থা রক্ষায় যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া।

আসন্ন রথযাত্রার বিভিন্ন দিক তুলে ধরে লিখিত বক্তব্যে চিন্ময় কৃষ্ণ দাস ব্রহ্মচারী বলেন, আবহমান কাল ধরে এই বাংলায় রথযাত্রা একটি অন্যতম অসাম্প্রদায়িক চেতনা সমৃদ্ধ উৎসব হিসেবে উদযাপিত হয়ে আসছে। এই উৎসবে বাংলার আপামর জনসাধারণ বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় যোগদান করে থাকেন। আগামী ১ জুলাই শুক্রবার বিকাল তিনটায় ইসকন প্রবর্তক শ্রীকৃষ্ণ মন্দিরের উদ্যোগে প্রবর্তক মোড় থেকে ঐহিত্যবাহী শ্রীশ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে। রথযাত্রায় চট্টগ্রাম মহানগর, জেলা ও উপজেলাসহ আশেপাশের এলাকা থেকে লক্ষাধিক মানুষ অংশগ্রহণ করবেন। এছাড়া রথযাত্রা উপলক্ষে ১ জুলা থেকে ৮ জুলাই পর্যন্ত আটদিনব্যাপী নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

এদিন ১ জুলাই বিকালে রথযাত্রার উদ্বোথন করবেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি। এছাড়া শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিষ্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সিটি মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী, জেলা প্রশাসক মো. মমিনুর রহমান, ভারতীয় দুতাবাসের সহকারী হাইকমিশনার ডা. রাজীব রঞ্জন, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক এমএ সালামসহ অন্যরা অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

১ জুলাই রথযাত্রা প্রবর্তক থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে হাজারীগলি গিয়ে শেষ হবে এবং ৮ জুলাই ফিরতি রথ একইপথে হাজারীগলি থেকে প্রবর্তক আসবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইসকন প্রবর্তক শ্রীকৃষ্ণ মন্দিরের অধ্যক্ষ লীলারাজ গৌর দাস, জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট চন্দন তালুকদার, মহানগর পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক হিল্লোল সেন উজ্জ্বল, চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দেবাশীষ আচার্য্য প্রমুখ।

জয়নিউজ/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...