মেয়ার্সের সেঞ্চুরিতে বড় লিডের পথে ওয়েস্ট ইন্ডিজ

0

দ্বিতীয় দিন শেষে ১০৬ রানের লিড নিয়ে এগিয়ে আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। শতক হাঁকিয়ে এখনো ক্রিজে আছে কাইল মেয়ার্স। ক্যারিবিয়ানদের লিড এনে দেন মেয়ার্স-ব্ল্যাকউড জুটি।

বিনা উইকেটে ৬৭ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দিনের শুরুতে ক্যারিবিয়ানরা ভালো করলেও মধ্যাহ্ন বিরতির ঠিক আগে টানা দুই ওভারে চারটি উইকেট পেয়ে ম্যাচ ফিরেছিল বাংলাদেশ। তবে এখন বড় লিডের পথে ছুটছে ক্যারিবিয়ানরা।

ক্রেইগ ব্রাথওয়েট ও জন ক্যাম্পবেলের ১০০ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন শরিফুল ইসলাম। শরিফুলের বলে উইকেটরক্ষক নুরুল হাসান সোহানের তালুবন্দী হন ক্যাম্পবেল। দ্বিতীয় উইকেটে ব্রাথওয়েট ও রেইমন রেফারের ৩১ রানের জুটি ভাঙেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ক্যারিবীয় অধিনায়ক ব্রাথওয়েটকে বোল্ড করেন তিনি। অর্ধশতক হাঁকিয়ে মাঠ ছাড়েন ব্রাথওয়েট।

উইকেটে বোলারদের সহায়তা দেখছেন না তামিম
পরের ওভারের প্রথম বলেই রেইমন রেইফারকে বোল্ড করেন খালেদ আহমেদ। ৪১ বলে ২২ রান করে সাজঘরে ফেরেন রেইফার। সেই ওভারেই শেষ বলটিতে এনক্রুমাহ বনারকেও বোল্ড করেন খালেদ। ১৩২ রানে চার উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

পঞ্চম উইকেটে দেওয়াল হয়ে দাঁড়িয়ে যান মেয়ার্স ও ব্ল্যাকউড। তারা গড়েন ১১৬ রানের জুটি। বাংলাদেশকে হতাশায় ডুবানো এই জুটি ভাঙেন মিরাজ। ব্ল্যাকউডকে এলবিডব্লিউ করেন তিনি। ১২১ বলে ৪০ রান করেন ব্ল্যাকউড। তবে শতক হাঁকিয়ে এখনো ক্রিজে আছেন মেয়ার্স।

ষষ্ঠ উইকেটে ৯২ রানের জুটিতে অবিচ্ছিন্ন আছেন মেয়ার্স ও জশুয়া ডি সিলভা। শতক হাঁকিয়ে মেয়ার্সের সংগ্রহ ১২৬ রান। তার ১৮০ বলের হার না মানা ইনিংসটিতে আছে ১৫টি চার ও দুইটি ছক্কা। উইকেটরক্ষক ডি সিলভা ১০৬ বলে ২৬ রানে অপরাজিত আছেন।

দ্বিতীয় দিন শেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৩৪০ রান। স্বাগতিকদের লিডের পরিমাণ ১০৬ রান।

জেএন/এমআর

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...