ডলারের বিপরীতে টাকার মান ১ টাকা ৬০ পয়সা কমল

0

ফের মার্কিন ডলারের দাম বেড়েছে দেশে। ১ টাকা ৬০ পয়সা কমল টাকার মান। আজ সোমবার (৬ জুন) আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে প্রতি ডলারের দাম বাড়িয়ে ৯১ টাকা ৫০ পয়সা নির্ধারণ করে দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এর আগে, গত বৃহস্পতিবার ডলারের দাম ৮৯ টাকা ৯০ পয়সা নির্ধারণ করে দিয়েছিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এক মাসের ব্যবধানে ৬ দফা বাড়ানো হয়েছে ডলারের দাম। আলোচ্য সময়ে টাকার মান কমেছে ৫.০৫ টাকা।

গত ২৯ মে দেশে ডলারের এক রেট ৮৯ টাকা বেঁধে দিয়েছিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক। কিন্তু সোমবার এই রেট উঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এর পরপরই ডলারের দাম বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম জানান, ওপেন মার্কেটে চাহিদা বাড়ছে, সেই বিবেচনায় নিয়েই দর নির্ধারণ করা হয়েছে।

বাজারের পরিস্থিতি বিবেচনায় ব্যাংকগুলোর চাহিদা অনুযায়ী বাংলাদেশ ব্যাংক ডলার সরবরাহ করছে জানিয়ে আগে তিনি বলেছিলেন, চলতি অর্থবছরে এখন পর্যন্ত ব্যাংকগু‌লোর কাছে ৬ বিলিয়নের বেশি ডলার বিক্রি করা হয়েছে। যখনই প্রয়োজন হচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ডলার সরবরাহ করছে।

এদিকে, গত এক মাসের মধ্যে ডলারের দাম বেড়ে খোলা বাজারে ১০২ টাকা অতিক্রম করে রেকর্ড গড়েছিল। পরে কিছুটা কমে বর্তমানে খোলা বাজারে ৯৬ থেকে ৯৮ টাকায় ডলার বেচাকেনা হচ্ছে।

বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলারস অ্যাসোসিয়েশন (বাফেদা) এবং ব্যাংকের শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকারস, বাংলাদেশের (এবিবি) দাবির পরিপ্রেক্ষিতে রবিবার (২৯ মে) বাংলাদেশ ব্যাংক আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে ডলার ৮৯ টাকা বেঁধে দেয়।

আর আমদানিকারকদের কাছে বিক্রির জন্য বিসি সেলিং রেট নির্ধারণ করা হয় ৮৯ টাকা ১৫ পয়সা। যদিও ব্যাংকগুলো আন্তঃব্যাংক লেনদেনে প্রতি ডলারের বিনিময় মূল্য ৮৯ টাকা ৮০ পয়সার প্রস্তাব করেছিল।

কিন্তু তাতেও বাজার স্থিতিশীল না হওয়ায় গত ২ জুন আরও ৯০ পয়সা বাড়িয়ে ৮৯ টাকা ৯০ পয়সা নির্ধারণ করা হয়। আর আজ ৯১ টাকা ৫০ পয়সা নির্ধারণ করা হয়েছে। যা ডলারের দামের সর্বোচ্চ রেকর্ড।

জেএন/টিটি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...