কবজি বিছিন্ন পুলিশ সদস্যকে হেলিকপ্টারে পাঠানো হলো ঢাকায়

0

লোহাগাড়ায় একটি মারামারির মামলার এজাহারভুক্ত আসামির বিরুদ্ধে এক পুলিশ কনস্টেবলের হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রোববার (১৫ মে) সকালে উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের লালারখিল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আরো দুইজন আহত হন।

হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন হওয়া পুলিশ সদস্যের নাম মো. জনি খান (২৮)। আহত অন্য দুজন হলেন কনস্টেবল শাহাদাত হোসেন (২৭) এবং মামলার বাদী মো. আবুল হোসেন কালু।

জানা যায়, উপজেলার পদুয়া এলাকার বাসিন্দা মো. আবুল হোসেন গত ২৪ মার্চ অনধিকার প্রবেশ ও মারামারির অভিযোগে একটি মামলা করেন। ওই মামলায় পদুয়ার লালারখিল এলাকার মৃত আলী হোসেনের ছেলে কবির আহমদকে (৩৫) ২ নম্বর আসামি করা হয়। সকালে পুলিশের একটি দল আসামি কবির আহমদকে গ্রেপ্তারের জন্য লালারখিল এলাকার বাড়িতে অভিযান চালায়। এ সময় আসামি কবির আহমদ গ্রেপ্তার এড়ানোর জন্য ধারালো দা নিয়ে পুলিশের ওপর হামলা করেন। এতে দায়ের কোপে কনস্টেবল মো. জনি খানের এক হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন হওয়ার পাশাপাশি পুলিশের আরেক সদস্য শাহাদাত ও মামলার বাদী আবুল হোসেন আহত হন।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. আলাউদ্দিন তালুকদার জানান, পুলিশ সদস্য জনি খানকে আজ বিকেলেই উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। তাঁকে সেখানে আপাতত একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হবে।

জয়নিউজ/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...