টানা তিন ম্যাচ জয়বঞ্চিত পিএসজি

0

পয়েন্ট টেবিলের পঞ্চদশ স্থানে থাকা তোয়া রুখে দিয়েছে পিএসজিকে। এ নিয়ে টানা তিন ম্যাচ জয়বঞ্চিত থাকলো দশবারের লিগ ওয়ান চ্যাম্পিয়নরা। দুই গোলে এগিয়ে গিয়েও শেষ পর্যন্ত ড্র করতে হয়েছে মাউরিসিও পচেত্তিনোর শিষ্যদের।

রোববার রাতে লিগ ওয়ানে ম‍্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়েছে। পিএসজির হয়ে দুটি গোল করেন মার্কিনিয়োস ও নেইমার। সফরকারীদের হয়ে জালের দেখা পান ইকে উগবো ও ফ্লোরিয়ান টারডিউ।

এর আগে লেন্সের সঙ্গে ১-১ ও স্ট্রসবার্গের সঙ্গে ৩-৩ গোলে ড্র করেছিল পিএসজি। আগেই শিরোপা নিশ্চিত হওয়ায় এসব ড্রয়ের কারণে সমস্যা হচ্ছে না ফরাসি দলটির।

নিজেদের ঘরের মাঠে আধিপত্য বিস্তার করেই খেলেছেন মেসি, নেইমার, এমবাপেরা। ২৫তম মিনিটেই ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গিয়েছিল তারা। সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে চ্যাম্পিয়নদের মাঠ থেকে ১ পয়েন্ট নিয়ে ফিরেছে তোয়া।

ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটে অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার নিখুঁত ক্রসে সহজেই কাছের পোস্ট দিয়ে বল জালে জড়ান মার্কুইহোস। চলতি মৌসুমে লিগে এটি তার পঞ্চম গোল।

২৫তম মিনিটে নেইমারের গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে পিএসজি। ডি-বক্সে এমবাপেকে ফাউল করা হলে পেনাল্টি পেয়েছিল পিএসজি। স্পট কিক থেকে জালের ঠিকানা খুঁজে নিতে ভুল করেননি নেইমার। এই মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের ২৭ ম্যাচে গোল হলো ১২টি।

দুই গোলে পিছিয়ে পড়েও দমে যায়নি তোয়া। এক গোল শোধ করতে তাদের সময় লাগে মাত্র ৫ মিনিট। ৩০তম মিনিট গোল করেন ইকে উগবো।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই সমতা টানে স্বাগতিকরা। ৪৯তম মিনিটে বক্সের ভেতর রেনড রিপার্টকে পিএসজি ডিফেন্ডার প্রেসনেল কিম্পেম্বে ফাউল করলে পেনাল্টির পায় তোয়া। কেইলর নাভাসকে বিভ্রান্ত করে গোল করেন টারডিউ।

৫৭তম মিনিটে বল জালে পাঠান নেইমার। কিন্তু ভিএআরে তা বাতিল হয়ে যায়, কারণ এর আগে বল দখলের সময় এমবাপে প্রতিপক্ষের একজনকে ফাউল করেছিলেন।

তিন মিনিট পর বক্সের মাঝামাঝি জায়গা থেকে শট নেন মেসি, কিন্তু তা লক্ষ্যে রাখতে ব্যর্থ হন আর্জেন্টাইন তারকা। শেষ মুহূর্তে এমবাপের ক্রস থেকে বল পেয়ে বাঁ পায়ে ভলি নিয়েছিলেন মেসি, কিন্তু তা রুখে দেন প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডার।

এই ড্রয়ের পরও স্বাভাবিকভাবেই শীর্ষে পিএসজি। লিগের ৩৬ ম্যাচ শেষে তাদের সংগ্রহ ৮০ পয়েন্ট। সমান ম্যাচে ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে তোয়ার অবস্থান ১৬তম।

এন-কে

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...