ইউরোপ যাত্রাকালে লিবিয়ায় দুই শতাধিক বাংলাদেশি আটক

0

অবৈধভাবে ইউরোপে যাওয়ার চেষ্টাকালে দুশোর বেশি বাংলাদেশিকে আটক করেছে লিবিয়ার পুলিশ। গত শনিবার দেশটির পূর্ব উপকূলীয় জেলা মিসরাতা থেকে তাদের আটক করা হয়।

পরে তাদের লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির একটি বন্দিশিবিরে পাঠানো হয়। এদিকে ভূমধ্যসাগরের তিউনিশিয়া উপকূল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে আরও দেড় শতাধিক অভিবাসনপ্রত্যাশীকে। তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি রয়েছে।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়, মোট ৫৪১ জনকে আটক করা হয়, যাদের মধ্যে ২৪০ জন বাংলাদেশি বলে জানা গেছে। আটক ব্যক্তিরা মানব পাচারকারীদের সহায়তায় অবৈধ পথে ইউরোপ যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

এখন তাঁদের পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার আইএমওর সহায়তায় দেশে ফেরত পাঠানো হবে।

গত শনিবার অবৈধভাবে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেওয়ার চেষ্টা করে কয়েকশ অভিবাসনপ্রত্যাশী। লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলি থেকে আড়াইশ কিলোমিটার দূরে উপকূল থেকে তাদের আটক করে পুলিশ।

এদিকে ভূমধ্যসাগরের তিউনিশিয়া উপকূল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে দেড়শর বেশি অভিবাসনপ্রত্যাশীকে। রোববার অবৈধভাবে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপ যাওয়ার সময় চারটি নৌকা ডুবে যায়। এরপর তিউনিশিয়ার কোস্টগার্ড ১৫৪ জনকে জীবিত উদ্ধার করলেও মারা গেছেন বেশ কয়েকজন। উদ্ধার ব্যক্তিদের মধ্যে বেশ কয়কেজন বাংলাদেশি রয়েছেন।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে অবৈধভাবে ইতালি যাওয়ার পথে নৌযানডুবিতে প্রাণহানির ঘটনা বেড়েছে। অবৈধ অভিবাসীদের এই দলে বাংলাদেশিদের থাকার খবর আগেও এসেছে।

আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা আইএমওর তথ্য বলছে, ২০২১ সালে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপ যাওয়ার সময় মারা গেছেন ২ হাজার অভিবাসনপ্রত্যাশী। যা আগের বছর ছিল ১৪০০।

জয়নিউজ/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...