তুরস্কে যুদ্ধ বন্ধে বসতে যাচ্ছে রুশ-ইউক্রেন

0

চলমান যুদ্ধ বন্ধে রাশিয়ার সঙ্গে আলোচনায় বসতে ইউক্রেনের প্রতিনিধি দল তুরস্কে এসেছেন।

তুর্কি বার্তা সংস্থা আনাদুলুর খবর বলছে, স্থানীয় সময় সোমবার (২৮ মার্চ) দিবাগত রাত ১০টায় তারা ইস্তানবুলে পা রেখেছেন। এর কিছুক্ষণ আগে রাশিয়ার প্রতিনিধিরা তুরস্কে আসেন।

তুরস্কের প্রেসিডেন্টের ডোলমাবাসি কার্যালয়ে মঙ্গলবার দুদিনের এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। এর আগেও দুপক্ষের মধ্যে কয়েক দফা বৈঠক হয়েছে। তাতে নাগরিকদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিতে মানবিক করিডোর স্থাপনে ঐকমত্য ছাড়া বড় কোনো সফলতা আসেনি।

সোমবার এ আলোচনার বিষয়ে দুদেশের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ান।

তবে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলেছেন, শান্তি আলোচনায় পশ্চিমা মধ্যস্থতা মেনে নেওয়া হবে না। এদিকে আলোচনার উদ্যোগের মধ্যেই মারিওপোলসহ বিভিন্ন শহরে নতুন করে রুশ বাহিনীর হামলা শুরু হয়েছে।

ইউক্রেনে প্রথম পর্বের সামরিক অভিযান বন্ধের ঘোষণা দিলেও সোমবার নতুন করে মারিওপোলসহ বেশ কয়েকটি শহরে হামলা চালায় রাশিয়া। এতে ধ্বংস হয়ে যায় বেশ কয়েকটি আবাসিক ভবন।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ান বলেন, আশা করি, রাশিয়া এবং ইউক্রেনের প্রতিনিধিরা যুদ্ধবিরতি ও শান্তিচুক্তির বিষয়ে একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারবেন। আমরা তাদের আলোচনার জন্য সুন্দর একটা পরিবেশ তৈরি করতে চাই। আমি নিজেও তাদের সঙ্গে আলাদাভাবে দেখা করবো। প্রেসিডেন্ট পুতিন এবং জেলেনস্কির সঙ্গে টেলিফোনে কথা হয়েছে আমার। তারা দুজনই শান্তিচুক্তির বিষয়ে ইতিবাচক।

শান্তি চুক্তির বিষয়ে ইস্তাম্বুলে বৈঠক হলেও সংঘাত বন্ধে পশ্চিমা দেশগুলোর কোনো মধ্যস্থতা মেনে নেয়া হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ। সংঘাত বন্ধে তুরস্কের উদ্যোগকে স্বাগত জানান তিনি।

জয়নিউজ/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...